হারটা হতাশার লজ্জার নয়

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আহসান শামীম

আফগানিস্তানের মতো নবীন একটা দলের বিপক্ষে টেষ্টে লজ্জাজনক পরাজয়ের পরও অবশ্য বিষয়টাকে স্বাভাবিকভাবে দেখছেন অধিনায়ক সাকিব।পরাজয়কে লজ্জাজনক হিসেবে না দেখে হতাশার হিসেবে মনে করছেন তিনি।অধিনায়ক  সাকিব বলেন, ‘এই হার একটুও লজ্জাজনক বলে আমার মনে হয়নি। কষ্টদায়ক অবশ্যই, লজ্জাজনক নয়।’ ঘরের মাঠের সুবিধা নেয়া তো দূরের কথা, উল্টো উইকেট বুঝতেই গলদঘর্ম হতে হয়েছে ব্যাটসম্যানদের। আর সেই কারণে বড় পরাজয়ই বরণ করে নিতে হয়েছে সাকিববাহিনীকে।

অধিনায়কত্বে আসক্তি নেই সাকিবের।তিনি মনে করেন অধিনায়কত্বটা একটা বাড়তি বোঝা, যার প্রভাব পড়েছে তাঁর ব্যাক্তিগত খেলায়।সাকিব আরও জানালেন, ‘অধিনায়কত্ব করতে হলে তাঁকে বোর্ডের সাথে আরও বোঝাপড়ার দরকার।’ তিনি আরও বলেন, ‘’২০ বছর আগেই ঘরোয়া ক্রিকেটে গুরুত্ব দেয়া উচিত ছিল।’ এখন এসব নিয়ে কথা বলে লাভ নাই।

স্টিভ রোর্ডস কোচ হওয়ার পর ওয়েষ্ট উইন্ডিজের বিপক্ষে টেষ্টের এক ইনিংসে ৪৩ রান করেছিল বাংলাদেশ।এবারও নতুন কোচ রোডসের মতো  কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর প্রথমেই আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে  বাংলাদেশের টেষ্ট করুণ পরাজয়টা দেখলেন।তার মতে, দুই কোচই বাংলাদেশ দলের সব থেকে খারাপ বিষয়টা প্রথমে দেখে ফেলেছেন।অধিনায়ক  সাকিব মনে করছেন, ‘একজন কোচের কাছে আগে ভাগে ভুলগুলো ধরা পরলে দ্রুত সেগুলো শুধরে ফেলা সম্ভব।’

বাংলাদেশের জন্য সবচেয়ে খারাপ দিক দেশে কোন পেসবান্ধব উইকেট না থাকায় বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক মানের নতুন কোন পেসার তৈরি হচ্ছে না।সাকিব বলেন,’ শুধু স্পিন নির্ভরা দল নিয়ে বেশি দূর এগুনো সম্ভব নয়।’

অন্যদিকে, আফগানদলের অধিনায়ক রশিদ খান জানালেন, দুবাইতে অনুশীলনটা কাজে লেগেছে বাংলাদেশে। দুবাইয়ের অনুশীলনের মতই উইকেট পেয়েছে বাংলাদেশে তাঁর দল।’ তিনি আরও বলেন, আমারা বাংলাদেশের মত সুযোগ সুবিধা না পেলেও, আমরা খুবই পরিশ্রমী দল।’

ছবিঃ গুগল

প্রাণের বাংলায় প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। লেখা সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় প্রাণের বাংলা বহন করবে না। প্রাণের বাংলার কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারবেন । লেখা সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ অথবা নতুন লেখা পাঠাতে যোগাযোগ করুন [email protected]