গুটিপা আর লুম্বিলি নিয়ে বহ্নি…

 

FB_IMG_1459060078576

তসলিমা মিজি বহ্নি,মূলত সাংবাদিকতা দিয়েই তার চাকুরি জীবনের শুরু। দেশের বেশ ক’টা বড় দৈনিকে কাজ করেছেন বহ্নি। হঠাৎ করেই তাকে পেয়ে বসে স্বাধীনতার নেশা। তাই সাংবাদিকতা ছেড়ে দিয়ে ২০০৮ থেকে শুরু করেন স্বাধীন ব্যবসা। শুরুটা কম্পিউটার ব্যবসা হলেও এখন তিনি ব্যস্ত আছেন চামরাজাত সামগ্রী নিয়ে। বিভিন্ন ডিজাইনের ব্যাগ আর রকমারী জুতা তৈরীতেই এখন আনন্দ পাচ্ছেন।আর গড়ে তুলেছেন তার ছোট্ট সাম্রাজ্য ‘গুটি পা”

স্বাধীন ভাবে ব্যবসা করতে বসে কতটা স্বাধীনতা পেয়েছেন জানতে চাইলে বলেন, আসলে মানুষ ভাবে এক আর হয় আরেক। সাংবাদিকতা করতে করতে মনে হয়েছিলো নিজের প্রতিষ্ঠান হলে ঘরে- বাইরে বা নিজেকে নিয়ে ভাববার সময পাবো। কিন্তু মানুষ যা ভাবে সব কি আর হয়? এখানে কাজের স্বাধীনতা আছে। নিজের ইচ্ছে মতই সব করতে পারছি। ঘরেও বাচ্চাকে সময় দিচ্ছি কিন্তু নিজের জন্য সময়টাই বের করতে পারি না। এখন বুঝি ব্যবসা মানে নিজের মানুষজন ছাড়াও অন্য অনেকের রুচি এবং দায়িত্ব কাঁধে নেয়া। তারপরও সব মিলিয়ে ভালই আছি।

কম্পিউটার ছেড়ে লেদার সামগ্রীর দিকে মোড় ঘোরানো কারন জানতে চাইলে বলেন, কম্পিউটার ব্যবসার পাশপাশিই এটা শুরু করেছি। আমি আর্টিস্ট না কিন্তু আমার ভেতরে একটা সৃস্টিশীল মন আছে। ওই মনটার তাগিদেই এদিকে আসা। তাছাড়া নিজের দেশের জন্য কিছু একটা করার স্বপ্ন আমার সবসময়ই আছে। তাই দেশীয় সামগ্রী দিয়েই একটা ব্রান্ড তৈরি করছি। প্রোডাক্টের গাযে লেখা থাকবে ‘মেড মেড ইন বাংলাদেশ’। আর এ নিয়েই আমি দেশ এবং বিদেশে নিজের দেশকে তুলে ধরবো। সর্বোপরি নিজের সৃস্টিশীল মনটাকে মানুষজনের সঙ্গে শেয়ার করে কিছু তৈরি করা। তাই এই বাঁক নেয়া।

নারী হিসেবে ব্যবসা ক্ষেত্রে কোন সমস্যা হয় কি জানতে চাইলে বলেন,আসলে আমাদের দেশে মানুষকে মানুষের চেয়েও বেশী বিচার করা হয পুরুষ এবং নারী হিসেবে। একজন ব্যবসায়ী মানে সে পুরুষ না নারী সে বিষয়টাই পরোক্ষ ভাবে সামনে চলে আসে। তাই নারী না পুরুষ সে বিষয়টার সামনা সামনি দাড়াই প্রতিষ্ঠানের জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপের সময়। এটা হলো সম্পূর্ণ দৃষ্টিভঙ্গির ব্যাপার। এখনও নারী এবং পুরূষ হিসাবে দেখার দৃষ্টিভঙ্গিটা আমাদের পরিবর্তন হয়নি। তাই ব্যবসা সংক্রান্ত ব্যাংক, বীমা, আয়কর, কাস্টমার, সাপ্লাইয়ার সবক্ষেত্রেই এটা প্রকট। কিছু করার নেই। যতদিন দৃষ্টিভঙ্গি চেন্জ না হবে এর মধ্যেই কাজ করে যেতে হবে
আমাদের নারীদের।

বাজারে এসেছে গুটিপা ও লুম্বিনি

gotipa2আধুনিক ডিজাইনের মেয়েদের ফ্যাশন ব্যাগের সম্ভার নিয়ে সদ্য অনলাইন বাজারে এসেছে লুম্বিনি। বিদেশ থেকে আমদানীকৃত একঘেয়ে চকমকে ব্যাগের মাঝে দেশে তৈরী লুম্বিনির ব্যাগের বুটিক মান চোখে পড়ার মত। লুম্বিনির ব্যাগগুলো মুলত আধুনিক পেশাজীবি নারীদের প্রয়োজনকে মাথায় রেখে ডিজাইন করা। প্রয়োজনীয় স্পেস রয়েছে ব্যাগে, আবার ব্যাগগুলো দেখতেও রুচিশীল। লুম্বিনির সহযোগী ব্র্যান্ড গুটিপা এনেছে আরাম ও টেকসই জুতা। গুটিপার জুতোগুলোও মুলত কর্পোরেটে কর্মরত মেয়েদের জন্য তৈরী। গুটিপা আর লুম্বিনি শতভাগ দেশী ব্র্যান্ড। মানসম্পন্ন  দেশী চামড়ায় তৈরী লুম্বিনির ব্যাগ আর গুটিপার জুতো। ক্রসবডি, শোল্ডার ব্যাগ, টোট ব্যাগ, মোবাইল পাউচ, ইভিনিং ক্লাচ, ছোট পার্সগুলো পাওয়া যাবে অত্যন্ত সুলভ মুল্যে। বিভিন্ন সাইজের লুম্বিনি ব্যাগগুলোর মুল্য ১২০০ টাকা থেকে ৪০০০ টাকা। এদিকে গুটিপায় পাওয়া যাচ্ছে বিভিন্ন ডিজাইনের মেয়েদের ফর্মাল ও ইনফর্মাল জুতো। স্লিপার, ফ্লিপ ফ্লপ, ব্যালেরিনা ও লোফার জুতো পাওয়া যাচ্ছে লুম্বিনিতে। লেদার ও সিনথেটিক লেদারের তৈরী গুটিপার জুতো এবং লুম্বিনির ব্যাগ কিনতে গুটিপার ফেসবুক পেজে (facebook.com/gootipa) ঘুরে আসুন।

gootipa banner