হাতুড়াসিংহ আচমকা ঢাকায়

আহসান শামীমঃ রহস্যজনক পদত্যাগের পর কোচ হাথুড়াসিংহের হঠাৎ ঢাকা সফর । শ্রীলংকা দলের দায়িত্ব নেওয়ার পর তিনি ঢাকায় এলেন ছাড়পত্র নিতে। দুপুরে রাজধানীর র‌্যাডিসন ব্লু হোটেলে বিসিবি সভাপতির সাথে বৈঠকও করেছেন । বৈঠকের বিষয়বস্তু নিয়ে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন গনমাধ্যম কর্মীদের জানালেন, হাথুড়াসিংহের সাথে কোন সৌজন্যতা নয় সরাসরি ছাড়পত্র দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সেটা নিতেই তিনি ঢাকায় এসেছেন। যদিও খেলোয়াড়দের সাথে মনমালিন্যকে কেন্দ্র করে হাথুড়াসিংহ পদত্যাগ করেছেন বলে বিসিবি সভাপতির কাছে জানিয়েছেন।

এরপর একই হোটেলে সন্ধ্যায় বিসিবি সভাপতি আলোচনা করলেন টাইগার দলের তিন অধিনায়ক আর কোচিং স্টাফদের সঙ্গে। হাথুড়াসিংহের লঙ্কা সফরের আগে কোন হেড কোচ নেওয়ার পক্ষে মাশরাফি , মুশফিক সাকিবদের সোজাসাপ্টা জবাব না । হাথুড়াসিংহের লঙ্কানদের, তাঁরাই কোচবিহীন সামাল দিতে আগ্রহী। বিসিবি সভাপতির কাছে সবার অনুরোধ ছিলো হেড কোচ নির্বাচনে তাড়াহুড়ো না করার।বিসিবি বস আশ্বস্ত হলেন , রোববারের বোর্ড সভায় হেড কোচ নির্বাচন চুড়ান্ত না করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিসিবি সভাপতি নিজেই জানালেন, ‘আমরা কোচ নির্বাচনের একটা প্রক্রিয়ার মধ্যে আছি। এমনও তো হতে পারে আমরা শ্রীলঙ্কা সিরিজের আগে কোনও কোচ নিয়োগই দিলাম না।অধিনায়ক ও কোচিং স্টাফরা বলেছে , ওরা নিজেরা মিলে যেন এখন থেকেই একটা পরিকল্পনা করে ফেলে যে, সামনের সিরিজটা আমরা কিভাবে খেলব। ওদের আস্থা ও পরিকল্পনার ওপর সম্মান রেখেই এই সিদ্ধান্ত ।’

লঙ্কানদের বিপক্ষে বর্তমান প্রধান সহকারী কোচ রিচার্ড হ্যালসল কে অস্থায়ী হেড কোচ আর  খালেদ মাহমুদ সুজনকে সহকারী কোচ হিসাবে প্রস্তুত থাকার কথা বলেছেন বিসিবি সভাপতি।এদিকে ক্যারাবীয়ান অলরাউন্ডার ও বিশ্বকাপ জয়ী করা কোচ সিমেন্স আগামীকাল বিসিবি’র কাছে টাইগারদের হেড কোচ হওয়ার পরীক্ষায় অবতীর্ণ হবেন। সেখানেই তিনি তাঁর পরিকল্পনার কথা পরিস্কার করবেন।এই মুহূর্তে হেড কোচের সিদ্ধান্ত না নেওয়া হলেও , সামনের দিনগুলোতে কাউকে না পেলে পাইবাস, সিমন্স অথবা জিওফ মার্শ বা জন্টি রোর্ডস থেকেই কেউ একজন বাংলাদেশের নতুন কোচ হিসেবে দায়িত্ব নেবেন সেটা মোটামুটি পরিস্কার ।

ছবিঃ গুগল