মুখ খুললেন রাউলিংস

অবশেষে মুখ খুললেন জে.কে রাউলিংস। বিষয় জনি ডেপ। বেশ কিছুদিন ধরে হ্যারি পটারের নতুন সিনেমা ‘ফ্যান্টাস্টিক বিস্ট’-এ জনি ডেপকে নেয়ার বিষয়টি নিয়ে সমালোচনার ঝড় বইছে। আর সেই ঝড়ে পড়ে বিপাকে স্বয়ং লেখিকাও। ভক্তদের অভিযোগ, জনি ডেপ তার ব্যক্তিগত জীবনের নানা অঘটনে গত দু বছর ধরে সমালোচিত হচ্ছেন ঘরে, বাইরে। তাকে এই ছবিতে নেয়া অনুচিত হয়েছে।

ভক্তদের সমালোচনার মুখে মুখ বন্ধ করেই ছিলেন রাউলিংস। কিন্তু শেষে এসে ব্যাখ্যা দিলেন তিনি। নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানালেন, প্রখ্যাত অভিনেতা জনি ডেপ হ্যারি পটারের নতুন সিনেমায় পেয়ে তিনি আনন্দিত।

তিনি অবশ্য ভক্তদের এই সমালোচনাকে একেবারে উড়িয়েও দেননি। জবাবে বলেছেন জনি ডেপের সুঅভিনয়ের কথা। তাঁর মনে হয়েছে জনি ডেপ গ্রিনডেলওয়াল্ড চরিত্রটিতে অভিনয় করলে দর্শকদের কাছে ভালো লাগবে। বার্তার শেষে এসে রাউলিংস বলেছেন, জনি ডেপ আর তাঁর সাবেক স্ত্রী অ্যাম্বার হার্ডের পারিবারিক জীবনে যা ঘটে গেছে সেটা একান্তই তাদের ব্যক্তিগত নির্জনতা। সে জায়গাটার প্রতি সবারই শ্রদ্ধাবোধ থাকা উচিত।

এই ছবির প্রযোজক সংস্থা ওয়ার্নার ব্রাদার্সের কর্মকর্তারা বলেছেন, জনি ডেপকে নিয়ে বিতর্কের ব্যাপারটা তারা জানেন। এ নিয়ে দর্শকদের মাঝে তারা জরিপও চালিয়েছে। তবে তারা জনি ডেপকে বাদ দেয়ার মতো কোনো কারণ  খুঁজে পায়নি।

এর আগে বিভিন্ন গণমাধ্যমে মদ্যপান করে জনি ডেপের রান্নাঘরে বোতল ছুঁড়ে মারা  এবং ঘরের আয়নার স্ত্রীর গোপন প্রেমিকের নাম লিখে রাখার ভিডিও ফাঁস হয়ে গেলে হ্যারি পটারের ভক্তরা প্রতিবাদে ফেটে পড়ে।

বিনোদন ডেস্ক

তথ্যসূত্র ও ছবিঃ হাফিংটন পোস্ট