আঠারো বছর পর অপর্ণা সেন

প্রায় ১৮ বছর পর বাংলাদেশে এলেন ভারতের বিশিষ্ট অভিনেত্রী ও চলচ্চিত্র পরিচালক অপর্ণা সেন। ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৮ তে অতিথি হয়ে এসেছেন এই কুশলী শিল্পী। তাঁর বাবা ও মায়ের জন্ম, এই দেশেই। দেশ ভাগের আগে তাঁরা ছিলেন চট্টগ্রাম জেলার বাসিন্দা আর তাই বাংলাদেশে এলেই ভীষণ স্মৃতিকাতর হয়ে ওঠেন তিনি। এই ভ্রমণ তখন তাঁর কাছে স্মৃতির পথে ফেরা হয়ে ওঠে।
এমনই সব অবেগঘন প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করলেন তিনি ঢাকা ক্লাবে উদ্যোক্তাদের আয়োজিত নৈশভোজে। অপর্ণা সেন বললেন, দীর্ঘ সময় তিনি বাংলাদেশে আসেননি। শেষবার এসেছিলেন ২০০০ সালে। ‘এখানে এলেই আমার পুরনো কথা মনে পড়ে। আমি চট্টগ্রাম আর কক্সবাজারে যেতে চাই।সেখানেই আমার বাবা আর দাদু বসবাস করতেন ’
তারপর একটু হেসে বললেন, ‘সবসময় উইকিপিডিয়ার ওপর নির্ভর করবেন না সব তথ্যের জন্য। ওখানে লেখা আছে আমার জন্ম বাংলাদেশের যশোর জেলায়।’
বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে নতুন কোনো সিনেমা তৈরী করছেন কি না জানতে চাইলে এই অসাধারণ অভিনেত্রী বলেন, ২০১৩ সালে তাঁর ‘গয়নার বাক্স’ ছবিটির শ্যুটিং করতে বাংলাদেশে আসতে চেয়েছিলেন। কিন্তু নানা প্রতিবন্ধকতায় তা আর হয়নি। এবার তিনি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘ঘরে বাইরে’ উপন্যাস নিয়ে কাজ করবেন বলে পরিকল্পনা করছেন। তবে সিনেমার প্রেক্ষাপট থাকবে এই সময়।
অপর্ণা সেন ১৯৬১ সালে সত্যজিৎ রায় পরিচালিত ‘তিন কন্যা:সমাপ্তি’ সিনেমার মাধ্যমে অভিনয় শুরু করেন। এরপর অসংখ্য সিনেমায় অভিনয় করে বাংলা সিনেমার দর্শকদের হৃদয় জয় করেন। ১৯৮১ সাল থেকে তিনি শুরু করেন চলচ্চিত্র পরিচালনা। তাঁর পরিচালিত ‘৩৬ চৌরঙ্গী লেন’, ‘পারমিতার একদিন’, ‘মি. অ্যান্ড মিসেস আইয়ার’ তাঁকে খ্যাতির শিখরে নিয়ে যায়।তিনি নিজের কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ভারতের ‘পদ্মভূষণ’ পুরস্কারও লাভ করেছেন।

বিনোদন ডেস্ক
তথ্যসূত্রঃ বিডিনিউজ.২৪
ছবিঃ গুগল