হাথুরা হেরে গেলো হিথের কাছে

২০ বল হাতে রেখে ১২ রানে হেরে গেল হাথুড়ার শ্রীলংকাকে হারালো হিথ স্ট্রেকের জিম্বাবুয়ে।আর এই জয়ের মধ্য দিয়ে শ্রীলংকার বিপক্ষে ওয়ান ডে ম্যাচে পর পর  ৬ খেলায় জয়ের মুখ দেখল জিম্বাবুয়ে। প্রথমে ব্যাট করে জিম্বাবুয়ে ২৯১ রানের টার্গেট দেয় শ্রীলংকাকে। অবশ্য শ্রীলংকার দায়িত্ব নিয়ে প্রথম পরীক্ষায় ফেল করলেন মাত্র ১২ রানের জন্য ।
২০০৬ সালের ৮ই ডিসেম্বর  মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে প্রথম ম্যাচ খেলে টাইগাররা। সেই ম্যাচে টাইগারদের প্রতিপক্ষ ছিল জিম্বাবুয়ে। আজ ত্রিদেশীয় সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হয়েছিল শ্রীলঙ্কা। এই ম্যাচটা দিয়ে পূর্ন হলো মিরপুরের শততম ম্যাচ। বিশ্বের অন্য যে কোনো মাঠকে পেছনে ফেলে দ্রুততম ওয়ানডে আয়োজনের সেঞ্চুরি করল মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়াম।টাইগার দলের ওয়ান ডে অধিনায়ক মাশরাফির নেতৃত্বে টাইগার দলের খেলোয়াড়া শততম এই ম্যাচে দর্শক হিসাবে উপভোগ করেন।ইনডোর অনুশীলন থাকায় বেশিক্ষন স্থায়ী ছিল না তাঁদের উপস্থিতি।
শততম ম্যাচের দিনে,মিরপুর স্টেডিয়ামের সুযোগ-সুবিধা বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। ঢাকার পূর্বাচলে নতুন একটা স্টেডিয়াম বানানোর পরিকল্পনা করছে বিসিবি। আর এজন্য এরইমধ্যে কমিটিও গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।এই বিষয় বিসিবি বস জানান, ‘পূর্বাচল স্টেডিয়াম নিয়ে লেটেস্ট আপডেট হচ্ছে,  জায়গা নিয়ে যে কথা হচ্ছিল, ওটা আমাদের বরাদ্দ দেয়ার জন্য সরকারের তরফ থেকে আগে প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে গিয়েছিল। সব জায়গাতেই অনুমোদন হয়ে গেছে এবং ফাইনালি সেটা ক্রীড়ামন্ত্রীর দফতর থেকে আমাদের কাছে চিঠি এসেছে। এখন শুধু আমাদের একদিন বসে ফাইনালি সিদ্ধান্ত নিতে হবে।’

অন্যদিকে জিম্বাবুয়ে এবং শ্রীলঙ্কার মধ্যকার সিরিজের  ম্যাচটার আগে এক দারুণ মাইলফলকের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন বুন। মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এই ম্যাচ দিয়েই শততম ম্যাচে রেফারি হিসেবে দায়িত্ব পালনের গৌরব অর্জন করেছেন তিনি। বুনের এই মাইলফলক স্পর্শের এই দিনটা স্মরণীয় করে রাখতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) স্মারক হিসেবে তাঁর হাতে তুলে দিয়েছে একটা ক্রেস্ট। যেখানে তাঁকে শুভকামনা জানানো হয়েছে।