দেশের মাটিতে ভারতীয় দল বাঘ হলেও…

আহসান শামীমঃ নিজেদের মাটিতে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের যেখানে আউট করাই কঠিন, সেখানে ১৩৫ ও ১৫১ রানের দুটা ইনিংস চোখে আঙ্গুল দিয়ে ভারতীয়দের দেখাচ্ছে দেশের মাটিতে তারা বাঘ হলেও দেশের বাইরে তারা এখনো সেই পর্যায়ে পৌছতে পারেনি।দক্ষিন আফ্রিকার সাথে হেরে লজ্জার রেকর্ড গড়েছেন কোহলি। টানা দুই ম্যাচ হেরে মেজাজটাও  হারালেন এই খিটমিটে ভারতীয় কাপ্তান।  একদিন আগে আম্পায়ারের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে গুনেছেন জরিমানা। নামের সঙ্গে যোগ হয়েছে ডিমেরিট পয়েন্ট। এবার সাংবাদিকের সঙ্গে ‘রাগারাগি’ করে লজ্জার নজির গড়লেন তিনি।

কোহেলির পাশাপাশি  লজ্জার আরেক রেকর্ড নিজের করে নিলেন পূজারা। নাহ, সেটা পারফর্মেন্স খারাপের নয়, বরং রান আউটের। ২০০০ সালের পর এই প্রথম কোন ব্যাটসম্যান একই টেস্টের দুটো ইনিংসেই রান আউট হয়ে সাজঘরে ফিরল। আর সেই বিরল কাজটা করলেন পূজারা।কোহেলি আর পূজারার লজ্জার রেকর্ডের সময় ,দক্ষিন আফ্রিকান পেসার এনগিদি নিজের প্রথম টেস্টেই তুলে নিয়েছে ৬উইকেট। আর এই সাথে অভিষেকেই ৫ বা তার বেশি উইকেট তুলে নেয়া আফ্রিকান বোলারদের তালিকায় ঢুকে গেলেন তিনি। এর আগে এই তালিকায় ছিল ফিলান্ডার, ল্যাঙ্গেভেল্ড, অ্যাবট, ডি ল্যাঙ্গে ও ক্লুজনার।

ইদানিং দুর্দান্ত ফর্মে থাকা ভারত,  আফ্রিকার মাটিতে ২৫ বছরের লজ্জার ইতিহাসের  পূনরাভৃত্তিই ঘটে চলছে।  আফ্রিকান পেসারদের সামনে রীতিমত কোন মহল্লার ব্যাটম্যানে পরিণত হয়েছে ভারতের বিখ্যাত ব্যাটিং লাইনআপ।

প্রথম টেস্টে আফ্রিকার করা ২৮৬ রানের জবাবে নিজেরা অল আউট হয়েছে ২০৭ রানে। দলের একমাত্র হার্দিক পান্ডেয়া  ৯৩ রান করেছেন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৬ রান। তৃতীয় সর্বোচ্চ ২৫ রান করেছে ঋদ্ধিমান সাহা। ২০৯ রানের মধ্যে ১৪৪ রান এই তিনজনেরই। বাকি ৮জন মিলে করেছে ৬৫ রান।দ্বিতীয় ইনিংসে আরও করুণ অবস্থা। স্বাগিতক পেসারদের দাপটে মাত্র ১৩৫ রানেই শেষ বিশ্বসেরা ব্যাটিং লাইন আপ দাবী করা ভারত। এদিন  সর্বোচ্চ ৩৫ রান করেছেন অশ্বিন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৮ রান এসেছে কোহলির ব্যাট থেকে।

দ্বিতীয় টেষ্টে ঘুরে দাড়ানোর ইঙ্গিত দিয়েছিল তারা। আফ্রিকার ৩৩৫ রানের জবাবে ভারত ৩০৭ রান করলেও এক কোহলিই করেছেন ১৫৩ রান। আর বাকিরা সবাই মিলে করেছেন ১৫৪ রান।  এখানে রান পাওয়ায় আত্মবিশ্বাসী হলেও বাকিদের ব্যাটিং ব্যর্থতা ভাবনায় ছিল কোহলির। সেটাই হল দ্বিতীয় ইনিংসে।১৫১ রানেই অল আউট হল ভারত। অভিষিক্ত পেসার এনগিদিই নেন  ৬ উইকেট। দলের সবচেযে বেশি ৪৭ রান এল রোহিতের ব্যাট থেকে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৮ রান করল ৯ নম্বরে থাকা সামি।

ইতিমধ্যেই দক্ষিন আফ্রিকা ২-০ তে সিরিজ জিতে নিয়েছে।

ছবিঃ ক্রিকইনফো