শিরোপা ফিরে গেলো কড়া নেড়ে

আহসান শামীম

দেশের মাঠে ফাইনালে জেতার ভাগ্য সহায়ক না টাইগারদের ।ত্রিদেশীয় কাপ ফাইনালে লঙ্কানদের কাছে টাইগারা হেরেছে ৭৯ রানে।এমন পীচে টসে হারা, সাকিবের ইন্জুরীতে ব্যাটিং করতে না পারা আর টপ অর্ডারের ব্যাটিং ব্যার্থতা সবকিছু মিলেই এবারও দেশের মাটিতে কাপ জেতা হলো না।টাইগার খেলোয়াড়দের মধ্যে একাই লড়াই করেছেন রিয়াদ তাঁকে কিছুটা স্বাধ দিতে সক্ষম হয়েছিল মুশফিক।

এই নিয়ে চতুর্থবারের মত দেশের মাটিতে ফাইনালে হার টাইগারদের।২০০৯ ত্রিদেশীয় কাপের ফাইনালে লঙ্কানদের বিপক্ষে, ২০১২ সালে পাকিস্তান , ২০১৬ সালে এশিয়া কাপেও ভারতের বিপক্ষে ফাইনালে বাংলাদেশ জয়ের মুখ দেখেনি।আজও ৯ বছর পর লঙ্কার বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজ ফাইনালে জয় পেল না বাংলাদেশ।
আজ ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে টসে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্তে শ্রীলঙ্কা। ৫০ ওভারে সব উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ২২১ রান। দলীয় ৪২ রানের মধ্যেই দুই উইকেট হারানো শ্রীলঙ্কাকে দারুন ভাবে ম্যাচে ফেরান উপুল থারাঙ্গা ও নিরোশান ডিকওয়েলা। এই দুজনে মিলে গড়েন ৭১ রানের জুটি।এরপর সাইফুদ্দিন এসে ডিকওয়েলাকে আউট করে ভাঙ্গেন বাংলাদেশের মাথা ব্যথা হয়ে উঠা এই জুটি। এরপর চান্দিমালের সাথে আরেক ৪৫ রানে জুটি গড়েন থারাঙ্গা। এরপরই প্রথমে মুস্তাফিজের বলে থারাঙ্গা  ৫৬  আর রুবেলের বলে থিসারা পেরেরা ২ রানে আউট হলে ম্যাচে ফেরে বাংলাদেশ।১৬৩ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ধুকতে থাকা শ্রীলঙ্কাকে  আর নিয়ন্ত্রনের বাইরে যেতে দেয়নি বাংলাদেশি বোলাররা। লাইন ও লেন্থ বজায় রেখে নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ২২১ রানেই আটকে রাখে তাদের।শেষের দিকে লঙ্কানদের চান্দিমালের ৪৫ রান আর রুবেল হোসেনের দাপুটে বোলিং এ  টাইগারদের  ২২২ রানের টার্গেট দিতে পারে লঙ্কানরা।
২০১৫ সালের ১৮ জুন ওয়ানডে ক্রিকেটে অভিষেক হওয়া এই তারকা আজকের ম্যাচ নিয়ে ২৬ টা একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে ৫১ উইকেট নিয়েছেন। আর এতেই মুস্তাফিজ পেছনে ফেলেছেন লেন প্যাসকো, প্যাট্রিক প্যাটারসন,কার্টলি অ্যামব্রোসের মতো সাবেক গ্রেট ক্রিকেটারদের।আজ রুবেল ১০ ওভারে ৪৬ রানে ৪ উইকেট , মুস্তাফিজ ২, মাশরাফি ও মিরাজ ১ টা করে উইকেট লাভ করেন।
সাকিবের চোট বাংলাদেশের জন্য দুঃসংবাদ বয়ে আনে।ফিল্ডিং করার সময় বাঁ-হাতের আঙ্গুলে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন সাকিব।সাকিবকে নেওয়া হয় এ্যাপোলো হাসপাতালের ধানমন্ডি শাখায়।শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ‍ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে ফিল্ডিংয়ের সময় আঙুলে ব্যথা পেয়েছেন সাকিব আল হাসান। বিসিবির চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী জানিয়েছেন, ফাইনালে সাকিবের ব্যাট করার সম্ভাবনা ক্ষীণ। এখন জানা গেছে, ৩১ জানুয়ারি শুরু হতে যাওয়া চট্টগ্রাম টেস্টেও খেলতে পারবেন না বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস জানিয়েছেন ।
২২২ রান তাড়া করতে, টাইগার দলে বিজয়ের পরির্বতনের ফলে মিথুন কে সঙ্গী করে তামিম ওপেনিং করেন।চাপে থাকা, টাইগারদের সাবধানী ব্যাটিং এ প্রথম দলীয় রান আসে ১০ বল পরে।৩ ওভারে বাংলাদেশের দলীয় রান ৩।কোন রান না দেওয়া লঙ্কান পেসার লাকমলের ছোড়া ১৩ তম বলে টাইগার দলে জায়গা পাওয়া মিথুন ওভার বাউন্ডারী হাঁকান।৩১ বলে বাংলাদেশের দলীয় রান ১১। ৩২ তম বলে তামিমের পুল শর্ট ক্যাচে পরিনত করতে ব্যার্থ হন বোলার চামেরা কিন্তু পরের বলেই তামিমের শর্ট ক্যাচে পরিনত হলে ১৮ বলে ৩ রানে সাজঘরে ফেরেন তামিম।দলীয় রান ৬ ওভারে ১২/১।লাকমলকে নবম ওভারে ফররওয়ার্ড ডিফেন্স করে রান নিতে গিয়ে লং অনে সতর্ক থিসারা পেরেরার থ্রো’তে রান আউট মিঠুন, ২৭ বলে ১০ রান করে সাজঘরে ফিরে যান।সাকিবের অনুপস্থিতি আর দুই ওপেনারের বিদায়ে ধুঁকতে থাকা বাংলাদেশকে চাপ মুক্ত করার দায়িত্ব  সাব্বির-মুশফিকের উপর। ব্যাটিং পাওয়ারপ্লের শেষ ওভারে প্রতি আক্রমন করার চেস্টা করেন সাব্বির। চামারাকে পুল করতে গয়ে শর্ট মিড উইকেটে ক্যাচ , ২ রান যোগ করে দলীয় ২২ রানে সাজঘরে ফিরে যান সাব্বির। উপরের সারির উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকা বাংলাদেশকে সঠিক পথে ফেরান দুই অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। ধনঞ্জয়ার করা ২৫তম ওভারে এসে সুইপ শট খেলার চেস্টায় টাইমিংয়ে গড়বড় করে বসেন মুশফিক।শর্ট থার্ড ম্যানে থাকা ফিল্ডারের হাতে ক্যাচ দিয়ে ২২ রানের ইনিংস খেলে সাজঘরে ফিরে যান মুশফিক।এরপর ১৩ বলে ৫ রান করে বিদায় নেন মেহেদী মিরাজ।৩১.২ তম ওভারে বাংলাদেশের ৫ উইকেটে দলীয় শততম রানের সাথে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের ব্যাক্তিগত অর্ধশত পূর্ন হয়।৩৭তম ওভারে ভুল বোঝাবুঝির ফলাফল স্বরূপ সাইফউদ্দিনকে ৮ রানে উইকেট বিসর্জন দিতে হয়।এরপর ব্যাট হাতে ক্রিজে আসেন অধিনায়ক মাশরাফি।প্রথম দিকে শ্রীলঙ্কার দুশমন্ত চামিরা ও ধনাঞ্জয়ার দুজনে দু্ই উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের শিবিরে কাঁপ ধরিয়ে দেন। শেষের দিকে, প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচে শিহান মাদুশাংকার হ্যাট্রিক উইকেট নিয়ে বাংলাদেশকে শিরোপা থেকে বঞ্চিত করেন।লঙ্কান উপল তারাঙ্গা ফাইনালের সেরা  আর সিরিজ সেরা খেলোয়াড় থিসারা পেরেরা ।
ছবিঃ গুগল