ভ্যালেন্টাইন দিবসের কেক

নাঈমা তাসনিম

কেক খেতে কে না ভালবাসে?যে কোন বিশেষ দিবস আমরা কেক কেটেই উদযাপন করি।তাই কেকের চাহিদা সবার কাছেই আছে।ভ্যালেন্টাইন দিবসকে সামনে রেখে পাঠকের জন্য এ সপ্তাহে থাকছে ভিন্ন স্বাদের তিনটি কেকের রেসিপি। রেসিপি দিয়েছেন বেকিং স্কুল হাওয়াই মিঠাইয়ের প্রতিষ্ঠাতা নাঈমা তাসনিম।

ভ্যানিলা ময়েস্ট কেক উইথ বাটারক্রিম ডেকোরেশন

উপকরণ :

ভ্যানিলা ময়েস্ট কেক উইথ বাটারক্রিম ডেকোরেশন

কেকের জন্য: ময়দা – ৩/৪ কাপ, গুঁড়া দুধ – ১/৪ কাপ , কর্ণ ফ্লাওয়ার – ২ টে চামচ, বেকিং পাউডার – ১/২ চা চামচ, বেকিং সোডা – ১/২ চা চামচ, ডিম – ২ টি, আইসিং সুগার – ১.৫ কাপ, তেল – ১/৪ কাপ, বাটারমিল্ক – ১/২ কাপ, ভ্যানিলা এসেন্স – ২ চা চামচ।

বাটার ক্রিমের জন্য: বাটার – ২০০ গ্রাম, আইসিং সুগার – ৩/৪ কাপ, ঠান্ডা লিকুইড দুধ – ৫ থেকে ৬ টে চামচ, এসেন্স – ২ চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালী :

কেকের জন্য শুকনো সব উপকরণ (ময়দা, গুঁড়া দুধ, কর্ণ ফ্লাওয়ার, বেকিং পাউডার, বেকিং সোডা) চালনীতে চেলে ভালো ভাবে মিশাতে হবে। ডিমের সাদা অংশ ও কুসুম আলাদা করে নিতে হবে। ডিমের সাদা অংশ হাই স্পীডে বিট করে ফোমের মত করতে হবে। তারপর এতে একে একে চিনি, এসেন্স, ডিমের কুসুম, তেল দিয়ে মিডিয়াম স্পীডে বিট করে মিশাতে হবে । মিশ্রণটি থিক ও ফ্লাফি হয়ে আসবে। ওভারবিট করা যাবে না এরপর এতে চেলে রাখা শুকনা উপকরণগুলো ও বাটারমিল্ক একটু একটু করে হালকা হাতে স্প্যাচুলা দিয়ে হালকা হাতে মিশাতে হবে।  প্রথমে কিছুটা শুকনা উপকরণ তারপর কিছুটা বাটারমিল্ক; এভাবে ৩ বারে মিশাতে হবে এবং শেষবার শুকনা উপকরণ দিয়ে শেষ করতে হবে। ৬” গ্রীজ করা দুইটি কেক প্যানে অর্ধেক অর্ধেক করে এই ব্যাটার ঢালতে হবে। ১৮০° সে. তাপে প্রিহিটেড ওভেনে ২০-২৫ মিনিট বেক করতে হবে। বাটারক্রিমের জন্য বাটার রুম টেম্পারেচারের হতে হবে। এসেন্স দিয়ে মিডিয়াম স্পীডে বিট করতে হবে। এরপর এতে অর্ধেক চিনি দিয়ে মিডিয়াম থেকে হাই স্পীডে বিট করতে হবে। এবার ২ টে চামচ খুব ঠান্ডা দুধ দিয়ে আবার মিডিয়াম থেকে হাই স্পীডে বিট করতে হবে।

 তারপর বাকি অর্ধেক চিনি দিয়ে আবার বিট করে তাতে আরো ২ টে চামচ খুব ঠান্ডা দুধ দিয়ে বিট করতে হবে। প্রয়োজনে আরো ১ থেকে ২ টে চামচ দুধ দিয়ে বিট করতে হবে যতক্ষণ না চিনি সম্পূর্ণ গলে যায় আর মিশ্রণটি অনেক সাদা ও ফ্লাফি হয়। কেক সম্পূর্ণ ঠান্ডা হলে ডেকোরেশন শুরু করতে হবে। কেক বোর্ডে একটু বাটারক্রিম লাগিয়ে তাতে কেকের একটা লেয়ার বসিয়ে উপরে বাটারক্রিম দিতে হবে। তারপর আরো একটা লেয়ার বসিয়ে উপরে ও পুরো কেকের চারপাশে বাটারক্রিম দিয়ে কোটিং করতে হবে। এরপর বাটারক্রিমে পছন্দসই জেল কালার মিশিয়ে তা পাইপিং ব্যাগে ভরে নজেল ব্যবহার করে কেকের উপর ডিজাইন করতে হবে। 

ডার্ক চকলেট কেক উইথ চকলেট গানাস

ডার্ক চকলেট কেক উইথ চকলেট গানাস

উপকরন :

কেকের জন্য: ময়দা – ৩/৪ কাপ, ডিম – ২ টি, আইসিং সুগার  – ১.৫ কাপ, তেল – ১/৪ কাপ, কোকো পাউডার – ১/৪ কাপ, কর্ণ ফ্লাওয়ার – ২ টেবিল চামচ , বেকিং পাউডার – ১/২ চা চামচ, বেকিং সোডা – ১/২ চা চামচ, বাটারমিল্ক – ১/২ কাপ, গরম পানি – ১/২ কাপ, ইনস্ট্যান্ট কফি – ১.৫ চা চামচ, ভ্যানিলা এসেন্স – ২ চা চামচ।

 চকলেট গানাসের জন্য : ডার্ক কুকিং চকলেট – ১/৪ কাপ, ক্রিম – ৩ টেবিল চামচ, মাখন – ১ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালী :

শুকনা সব উপকরণ (ময়দা, কোকো পাউডার, কর্ণ ফ্লাওয়ার, বেকিং পাউডার, বেকিং সোডা)চালনীতে চেলে ভালো ভাবে মিশাতে হবে। ডিম, চিনি, এসেন্স এক সাথে বিট করতে হবে। তারপর তাতে তেল দিয়ে আবার বিট করতে হবে। এরপর এতে চেলে রাখা শুকনা উপকরণগুলো ও বাটারমিল্ক একটু একটু করে হালকা হাতে স্প্যাচুলা দিয়ে মিশাতে হবে। সবশেষে গরম পানিতে কফি গুলে অল্প অল্প করে এতে মিশাতে হবে। ৬” গ্রীজ করা দুইটি কেক প্যানে অর্ধেক অর্ধেক করে এই মিশ্রণটি ঢালতে হবে। ১৮০° সে. তাপে প্রিহিটেড ওভেনে ২০-২৫ মিনিট বেক করতে হবে।

চকলেট গানাসের জন্য সব উপকরণ একসাথে একটা কাঁচের বাটিতে নিয়ে মাইক্রোওয়েভ ওভেনে একটু একটু করে মেল্ট করে মিশিয়ে নিলেই গানাস তৈরী হবে। গানাস রুম টেম্পারেচারে আসলে তা দিয়ে কেক ডেকোরেশন করা যাবে। কেক বোর্ডে একটু বাটারক্রিম লাগিয়ে তাতে কেকের একটা লেয়ার বসিয়ে উপরে বাটারক্রিম দিতে হবে। তারপর আরো একটা লেয়ার বসিয়ে উপরে ও পুরো কেকের চারপাশে বাটারক্রিম দিয়ে কোটিং করতে হবে। চেষ্টা করতে হবে কোটিং যেন স্মুথ হয় তাহলে সুন্দর লাগবে দেখতে। এরপর একটা পাইপিং ব্যাগে চকলেট গানাস ভরে কেকের সাইডে ড্রিপ করতে হবে। কিছু অল্প নামবে কিছু বেশি। সাইডে ড্রিপিং হয়ে গেলে কেকের মাঝে গানাস দিতে হবে। তারপর উপরে পছন্দসই সুগার পার্ল ছিটিয়ে দিতে হবে।

রেড ভেলভেট কেক উইথ ক্রিম চীজ ফ্রস্টিং

রেড ভেলভেট কেক উইথ ক্রিম চীজ ফ্রস্টিং

উপকরণ :

কেকের জন্য: ময়দা – ৩/৪ কাপ , ডিম – ২ টি, আইসিং সুগার – ১.৫ কাপ, তেল – ১/৪ কাপ, কোকো পাউডার – ১ টে চামচ, কর্ণ ফ্লাওয়ার – ২ টে চামচ, বেকিং পাউডার – ১/২ চা চামচ, বেকিং সোডা – ১/২ চা চামচ, বাটারমিল্ক – ৩/৪ কাপ, ভ্যানিলা এসেন্স – ২ চা চামচ,  লিকুইড লাল রং – ২.৫ চা চামচ।

ক্রিম চীজ ফ্রস্টিং এর জন্য: বাটার – ২০০ গ্রাম, আইসিং সুগার – ৩/৪ কাপ, ঠান্ডা তরল দুধ – ৫ থেকে ৬ টেবিল চামচ, ফিলাডেলফিয়া ক্রিম চীজ – ১৫০ গ্রাম, এসেন্স – ২ চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালী :

কেকের সব শুকনা  উপকরণ চালনীতে চেলে ভালো ভাবে মিশাতে হবে। ডিম, চিনি, এসেন্স একসাথে বিট করতে হবে। তারপর তাতে তেল ও লিকুইড রং দিয়ে আবার বিট করতে হবে।

এরপর এতে চেলে রাখা শুকনা উপকরণগুলো ও বাটারমিল্ক একটু একটু করে হালকা হাতে স্প্যাচুলা দিয়ে মিশাতে হবে। প্রথমে কিছুটা শুকনা উপকরণ তারপর কিছুটা বাটারমিল্ক; এভাবে ৩ বারে মিশাতে হবে এবং শেষবার শুকনা উপকরণ দিয়ে শেষ করতে হবে। ৬” গ্রীজ করা দুইটি কেক প্যানে অর্ধেক অর্ধেক করে এই ব্যাটার ঢালতে হবে। ১৮০° সে. তাপে প্রিহিটেড ওভেনে ২০-২৫ মিনিট বেক করতে হবে। বাটারক্রিমের জন্য বাটার রুম টেম্পারেচারের হতে হবে। এসেন্স দিয়ে মিডিয়াম স্পীডে বিট করতে হবে। এরপর এতে অর্ধেক চিনি দিয়ে মিডিয়াম থেকে হাই স্পীডে বিট করতে হবে। এবার ২ টে চামচ খুব ঠান্ডা দুধ দিয়ে আবার মিডিয়াম থেকে হাই স্পীডে বিট করতে হবে। তারপর বাকি অর্ধেক চিনি দিয়ে আবার বিট করে তাতে আরো ২ টে চামচ খুব ঠান্ডা দুধ দিয়ে বিট করতে হবে। প্রয়োজনে আরো ১ থেকে ২ টে চামচ দুধ দিয়ে বিট করতে হবে যতক্ষণ না চিনি সম্পূর্ণ গলে যায় আর মিশ্রণটি অনেক সাদা ও ফ্লাফি হয়।

কেক সম্পূর্ণ ঠান্ডা হলে ডেকোরেশন শুরু করতে হবে। কেকের দুইটা লেয়ার এর উপর থেকে কেক স্লাইসার দিয়ে খানিকটা কেক কেটে নিতে হবে। তারপর মোটা চালনিতে কেটে নেয়া কেকের অংশ চেলে গুঁড়া করে নিতে হবে। তারপর কেক বোর্ডে একটু ক্রিম লাগিয়ে তাতে কেকের একটা লেয়ার বসিয়ে উপরে ক্রিম চীজ ফ্রস্টিং দিতে হবে। তারপর আরো একটা লেয়ার বসিয়ে উপরে ও পুরো কেকের চারপাশে ক্রিম চিজ ফ্রস্টিং করতে হবে। তারপর আগে করে রাখা কেকের গুঁড়া দিয়ে সম্পূর্ণ কেকটি ঢেকে দিতে হবে এবং উপরে সুগার পার্ল দিয়ে সাজাতে হবে।