কোর্টনি ওয়ালশ হচ্ছেন শ্রীলংকা সফরে প্রধান কোচ

আহসান শামীম

কোর্টনি ওয়ালশ হচ্ছেন শ্রীলংকা সফরে প্রধান কোচ এমন সিদ্ধান্তের কথাই জানালেন খোদ বিসিবি সভাপতি। খালেদ মাহমুদ সুজন শ্রীলংকা সফরে ম্যানেজার হিসাবে দলের সাথে থাকবেন।শ্রীলংকার নিদহাস ট্রফির দল ঘোষনা কয়েকবার পেছানো হলো শুধু মাশরাফির সিদ্ধান্তের জন্য। শেষ অবধি অনড় মাশরাফি সিদ্ধান্তে অটল থাকলেন।মাশরাফি শ্রীলংকা সফরে যাবেন সমর্থক হিসাবে।বিসিবি’র শেষ চেষ্টা দলের মেন্টর হিসাবেও তাঁকে দলে পাওয়ার।অবশ্য শ্রীলঙ্কায় বিসিবি সভাপতির পাপনের ‘সার্বক্ষণিক’ তত্ত্বাবধানে থাকবে টিম বাংলাদেশ।

নিজের অভিজ্ঞতা দিয়েই বাংলাদেশের ক্রিকেটের উন্নতিতে অবদান রাখতে চান ওয়ালশ। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি কোচিং স্টাফদের একজন হয়ে কাজটা করতে চাই। সুযোগটা এসেছে এবং সেটা লুফে নিয়ে আমি আমার কাজটা করতে চাই। এটা হঠাৎ করে আসলেও এর জন্য আলোচনায় বসা জরুরী ছিল না। কারণ আমরা শেষ সিরিজ প্রধান কোচ ছাড়া খেলেছি। আমার দায়িত্বটা অন্তবর্তীকালীন। আমি আমার সেরাটা দিয়ে অবদান রাখতে চাই বাংলাদেশ ক্রিকেটে। দলকে আমি পুরোনো ধারাবাহিকতা ফিরিয়ে আনতে চাই।’ শ্রীলংকা সফরে বোলিং কোচ চম্পাক রামায়ন আর ব্যাটিং কোচ সায়মন হ্যালমেটকে নিয়োগ দিয়েছে বিসিবি।

সাকিবের ইন্জুরী কাটিয়ে উঠতে সময় লাগবে। তারপরও ঘোষিত দলে তাঁর নাম রয়েছে।ইমরুল কায়েসের টি-টুয়েন্টি গড় দশের নিচে।নিদহাস ত্রিদেশীয় কাপে ইমরুল কায়েসও আছেন।দলে ফিরেছেন তাসকিন  সাকিবের ইচ্ছায়।

নিদাসাহ ট্রফির স্কোয়াডে উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে সুযোগ পেয়েছেন ঢাকা প্রিমিয়ার লীগে দারুন ফর্মে থাকা নুরুল হসান সোহান।প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানিয়েছেন , ‘সোহান ঘরোয়া ক্রিকেটে যথেষ্ট ভালো খেলেছে। সেটা মাথায় রেখেই ও দলে এসেছে।’ সোহানের মত তাসকিন আহমেদের দলে ফেরার ক্ষেত্রে ঘরোয়া ক্রিকেটের ফর্ম বিবেচনায় আনেনি নির্বাচকরা। অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের ইচ্ছাতেই টি-টুয়েন্টি দলে ফিরেছেন এই স্পিডস্টার, জানালেন নান্নু।

ফর্ম বিচারে নিদাহাস ট্রফির স্কোয়াডে সাব্বির রহমানের নাম দেখলে যে কেউই অবাক হবেন। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন বিদেশের মাটিতে সাব্বিরের খেলার অভিজ্ঞতাকে প্রাধান্য দিচ্ছেন।যদিও পিসিএলে সাব্বির মাঠের বাইরেই পার করছেন সময়।নিদাহাস ট্রফিতে অভিজ্ঞদের উপর বিশ্বাস রাখছেন নির্বাচকরা। দলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অভিষেক হওয়া তরুন ক্রিকেটারদের দলের বাইরে রেখেছে নির্বাচকরা।এদের মধ্যে আফিফ, জাকির ও মেহেদীকে দলের বাইরে রাখা হয়েছে।শ্রীলঙ্কা সিরিজে দারুন বোলিং করা বাঁহাতি স্পিনার নাজমুল হোসেন অপুর উপর আস্থা রাখছে নির্বাচকরা। ফিনিশার কোটায় আরিফুল হককেও বিবেচনায় রেখেছে নির্বাচকরা।

নিদাহাস ট্রফির স্কোয়াড যারা সুযোগ পেয়েছেন : সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), ইমরুল কায়েস, তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মুস্তাফিজুর রহমান, নাজমুল হোসেন অপু, আরিফুল হক, রুবেল হোসেন, আবু হায়দার রনি, আবু জায়েদ রাহী, নুরুল হাসান সোহান, সাব্বির রহমান, তাসকিন আহমেদ ও মেহেদী হাসান মিরাজ।

সাকিব না খেললে কে হবেন অধিনায়ক সেই প্রশ্নের উত্তর মেলেনি শেষ অবধি।চিকিৎসার জন্য তিনি আজ ব্যাংকক সফরে গেছেন।

ছবিঃ গুগল