আমার স্বপ্ন…

তুহিন সাইফুল ইসলাম

ফেইসবুক এর গরম আড্ডা চালাতে পারেন প্রাণের বাংলার পাতায়। আমারা তো চাই আপনারা সকাল সন্ধ্যা তুমুল তর্কে ভরিয়ে তুলুন আমাদের ফেইসবুক বিভাগ । আমারা এই বিভাগে ফেইসবুক এ প্রকাশিত বিভিন্ন আলোচিত পোস্ট শেয়ার করবো । আপানারাও সরাসরি লিখতে পারেন এই বিভাগে। প্রকাশ করতে পারেন আপনাদের তীব্র প্রতিক্রিয়া।

আব্বাকে বললাম, ‘পরীক্ষা দিতে ভালো লাগে না, নদী দেখবো।’ আব্বা বললেন, ‘চলো।’

আব্বার আঙুল ধরে হাঁটতে হাঁটতে নদীর কাছে গেলাম। নদীতে ছোট ছোট ঢেউ, পাল তোলা নৌকা! ওই পাড়ে ঘাসের জমিন, সূর্যমুখীর বাগান, আর আমার মতো দেখতে একটা মানুষ।

আমি বললাম, ‘উনি কে বাবা?’
আব্বা বললেন, ‘তোমারে বয়ে নিয়ে যাওয়ার শরীর।’
বললাম, ‘জায়গাটার নাম কি?’
আব্বা বললেন, ‘জন্মান্তরের ঘাট।’

তারপর কিছুটা সময়ের জন্য আব্বা থামলেন। একটা নুড়ি কুড়িয়ে পকেটে রাখলেন। উদাস দৃষ্টিতে সবকিছু দেখলেন। আমিও দেখলাম শেষ নৌকাটির ঘাট ছেড়ে চলে যাওয়া!

‘তোমারে ওই পাড়ে যেতে হবে তুহিন। সেখানে অপেক্ষায় আছে তোমার শরীর। পরের ঘাট পর্যন্ত সে তোমারে বয়ে নিয়ে যাবে। ঘাটে তোমার অপেক্ষায় থাকবো আমি। এই নদী সাঁতরে পাড় হতে পারবা না?’

মাথা নাড়লাম। বললাম, ‘পারবো!’

সাঁতার শুরু করলাম। ছোট ঢেউ গুলিও বড় হলো। ঢেউয়ে দোল খেতে খেতে আমি এগুলাম।

কিছুদূর যেতেই মোহের পরী এসে জানালো, ‘এটা নদী নয় সমুদ্র! এই সাগর সাঁতরে পার হওয়া অসম্ভব।’ লোভের নৌকা এলো তুলে নিতে, আমি উঠে পড়লাম। কাম এলো মায়াময় সৌন্দর্য নিয়ে, তেইশের যুবকের বেশে এলো ক্রোধ।

এদেরকে সঙ্গ দিতে অনেক সময় চলে গেলো, এই ‘সাগর’ আমি পার হতে পারলাম না। পথ হারালাম।

নৌকার মাঝখানে বসে আমি দেখলাম ওই পাড়ে আমার শরীরের ভেতর বসতি করেছে অন্যমানুষ। নাম না জানা কোন কিশোরের কপালে চুমু খাচ্ছে আব্বা! এই দৃশ্য আমাকে অস্থির করে তুললো। ঈর্ষার সতীন এসে কানে কানে বললো ‘কুমন্ত্রনা’! লোভের নৌকা থেকে দিলাম লাফ!

(উদ্দেশ্যবিহীন নৌকায় চড়ে ততদিনে সাঁতার ভুলে গেছে তুহিন)

কাম, ক্রোধ, মোহ, আর লোভ বোঝার মতো জড়িয়ে ধরলো আমাকে। চাদর দিয়ে জড়িয়ে ধরলো ভয় আর অসহায়তা। আমি জন্মান্তরের অতল জলে তলিয়ে যেতে লাগলাম। নদীর একপাড়ে দাঁড়িয়ে থাকলো আমার পিতা, আরেক পাড়ে আমাকে বয়ে নিয়ে যাওয়ার শরীর। আমি আর্তনাদ করলাম। এই ডাক তাদের কান পর্যন্ত পৌঁছুল না।

কাঁদতে কাঁদতে ঘুম ভাঙলো আমার। স্বপ্ন দেখার ব্যথায় কিছুটা সময় অবশ হয়ে পড়ে থাকলাম। দৃষ্টি সীমার ভেতর একটা পাখা ঘুরলো, তার ঘূর্ণন দেখতে দেখতে আবার ঘুমিয়ে গেলাম।

আব্বাকে বললাম, ‘ঘুমোতে ভালো লাগে না, নদী দেখবো।’ আব্বা বললেন, ‘চলো।’

ছবি: গুগল