কাল সামনে আবার শ্রীলঙ্কা

আহসান শামীম

শ্রীলংকার নিদহাস কাপে ভারতের কাছে টাইগারদের হার। হতাশ অধিনায়ক মনে করেন দলের মধ্যে সমন্বয়হীনতাই পরাজয়ের কারন। বাংলাদেশ দলের ইনিংসে ১২০ বলের খেলায় ৫৭ বল ছিল ডট।এর মধ্য অধিনায়ক রিয়াদ নিজেই ব্যাট হাতে খেলেছেন ৭ টা ডট বল। লিটন দাস আর সাব্বির ছাড়া কেউ তিরিশ এমন কি কুড়ি রানের ঘরও টপকাতে পারেন নি। ডট বলকেই অভিশাপ মানছেন রিয়াদ আর আপসোস করছেন বাড়তি তিরিশ রান না হওয়ার জন্য।

টাইগার অধিনায়কের এমন অনুভুতির, সামনে ভারতের অধিনায়ক মনে করেন ভারতীয় পরিকল্পনার ফাঁদে পড়েই হেরেছে বাংলাদেশ।তামিম, সৌম্য , মুশফিক উইকেট বিলিয়ে সাজঘরে ফিরেছেন।

অবশ্য ভারতের বিপক্ষে টাইগারদের হারের চেয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তুলছে ভারত -বাংলাদেশের ম্যাচের আগে বাংলাদেশের পতাকার রঙ। লাল-সবুজের পতাকা কিভাবে নীল সবুজে পরিণত হলো সে রহস্য নিয়েই এখন চলছে জোর আলোচনা। শ্রীলংকা ক্রিকেট কাউন্সিল এমন কি বিসিবিও এখন পর্যন্ত এ বিষয় দুঃখপ্রকাশ করেনি। জানা যায়নি তাদের প্রতিক্রিয়াও।

শ্রীলঙ্কার কলম্বোর আর. প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে তখন দর্শকদের মধ্যে টানটান উত্তেজনা।প্রথা অনুযায়ী  শুরু হয়ে গেলো কলম্বোর সবুজ মাঠে জাতীয় সঙ্গীত। প্রথমে ভারতের জাতীয় সঙ্গীত বাজার সময়  বুকে হাত দিয়ে ভারতীয় খেলোয়াড়রা শ্রবণ করলেন তাঁদের প্রিয় সঙ্গীত। এক দিকে ধরে রাখা হলো তাদের  জাতীয় পতাকা।

এবার বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত। টাইগাররা শুনছিলেন ‘আমার সোনার বাংলা…’। দেখা গেল বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা, সবুজের মাঝে উদিত সূর্য নেই, সুর্য উদিত হয়েছে প্রকট নীলের মাঝে। যেখানে সবুজ থিতিয়ে গেছে। বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার এ কোন দশা ?

প্রথমে টেলিভিশনের রঙের সমস্যা মনে করেছিল সবাই। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় বাংলাদেশী সমর্থকরাও এমনটাই ভেবেছিলেন। পরে বিষয়টা নিয়ে নানা কথা শুরু হলে বোঝা যায় আসলেই বাংলাদেশের ভুল রঙের পতাকা প্রদর্শিত হয়েছে।শ্রীলংকার  সবুজ মাঠে প্রদর্শিত বাংলাদেশের পতাকার মধ্যে সবুজ অনুপস্থিত। বিসিবি বস নাজমুল হাসান পাপনের সামনেই ঘটনাটা ঘটে। তিনি মাঠে বসে খেলা দেখেছেন। এখনও এনিয়ে তার কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

আগামীকাল শনিবার শ্রীলংকার বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।ভারতের সঙ্গে হারের পরও বাংলাদেশকে দুর্বল মনে করছেন না সাবেক শ্রীলঙ্কান ফার্স্ট বোলার চামিন্দা ভাস।তিনি মনে করেন, বর্তমানে বাংলাদেশ দলে যারা খেলছে তাদের মধ্যে সবাই পারফর্ম করতে উদগ্রীব। লঙ্কানদের বিপক্ষে নিদাহাস ট্রফিতে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ব্যাটসম্যানরা ১৭০-৮০ রান করতে পারলে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী তাসকিন।আর শ্রীলংকার দল মনে করে বাংলাদেশের বিপক্ষে জয়ের ব্যাপারে তাঁরা যথেষ্ট আশাবাদী আর এর মুল কারন হিসাবে চিহ্নিত করা হচ্ছে হাথুরার পরিকল্পনা। এ পর্যন্ত বাংলাদেশ ৭২ টা টি-টুয়েন্টি খেলেছে তার মধ্যে হেরেছে ৪৯ টা । সম্ভাবত নিদহাস কাপেই হারের অর্ধশত পূর্ন হতে পারে যদি-না টিম বাংলাদেশ সামর্থ অনুযায়ী খেলতে পারে।

ছবিঃ ইএসপিএন