কাল কঠিন লড়াই

আহসান শামীম

আগামীকাল বুধবার ভারতের বিপক্ষে নিদাহাস ট্রফিতে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচ খেলতে  মাঠে নামবে টাইগাররা। নেপালের রাজধানী কাঠমুন্ডুর ত্রিভুবন বিমান বন্দরে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান দুর্ঘটনায় নিহতদের প্রতি সমবেদনা জানাতে এই ম্যাচে কালো ব্যাজ পরিধান করবে টাইগাররা।এমন তথ্যই নিশ্চিত করছে বিসিবি।

লঙ্কানদের বিপক্ষে টাইগারদের রেকর্ড গড়া ম্যাচে জয় আর গত সোমবার রাতে ভারতের কাছে ৬ উইকেটে লঙ্কানদের পরাজয়ে টাইগারদের জন্য অর্শিবাদ হলেও নিদাহাস কাপের ফাইনাল  খেলতে ভারতের বিপক্ষে জয়টা গুরুত্বপূর্ণ। টি-টুয়েন্টির সূচনা থেকে টাইগারা আজও ভারতের বিপক্ষে জয়ের মুখ দেখেনি। কোহলি, ধোনিরা দলে না থাকলেও ভারতের বোলিং আ্যর্টাক আর গ্রাউন্ড ফিল্ডিং দারুন।নিদাহাস ট্রফির প্রথম ম্যাচে টাইগারা ভারতের বোলারদের প্রায় ৪৯ শতাংশ বল খেলতেই পারেননি। সোমবার লঙ্কানরা ও ভারতের বোলিং অ্যাটাকে ১৯ ওভারে দিয়েছে ৪৪ ডটবল।প্রথম পাওয়ার প্লেতে লঙ্কানদের রান রেট ১২.৫০ গড় হলেও শেষ ৭ ওভারে লঙ্কানদের রান রেট ওভার প্রতি গড় ৪.২১।ভারতীয় দলে ক্যাচে দূর্বলতা দেখা দিলেও টাইগারদের আর সোমবার লঙ্কানদের বিপক্ষে গ্রাউন্ড ফিল্ডিং ছিল অসাধারন।

আগামীকাল বুধবার টাইগারদের বিপক্ষে ভারত জিতলে সরাসরি চলে যাবে ফাইনালে।ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে সেক্ষেত্রে লঙ্কানদের বিপক্ষে টাইগাদের শুক্রবারের ম্যাচ পরিণত হবে সেমিফাইনালের লড়াইয়ে।

লঙ্কানদের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয়ের পর বেশ ফুরফুরে মেজাজেই আছেন বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা।লঙ্কা থেকে ফিরেই বিসিবি সভাপতির বক্তব্যের মাঝেই আশঙ্কা করা হচ্ছে দলে সাব্বির বা মেহেদীর পরির্বতনের সম্ভাবনা রয়েছে। সাব্বির , মেহেদীর মধ্যে দলে আগামীকাল সাব্বিরকে না দেখার সম্ভাবনাই বেশি। ব্যাট হাতে লঙ্কানদের বিপক্ষে যে ভাবে সাব্বির আউট হয়েছেন তাতে নাখোশ টিম ম্যানেজমেন্টও।অবশ্য ব্যাট হাতে সফল না হলেও লঙ্কানদের বিপক্ষে সাব্বির পর পর দারুন তিন ক্যাচ ধরে একরকম হ্যাট্রিকই করেছিলেন।টিম ম্যানেজমেন্টের এক সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে ভারতের বিপক্ষে কৌশলগত কারনে পরির্বতনের ইঙ্গিত দেন। সেক্ষেত্রে মুল একাদশ থেকে বাদ পরার সম্ভাবনা তাসকিন আর সাব্বিরের। দলে এই দুই খেলোয়াড়ের জায়গায় একাদশে দেখা যেতে পারে অলরাউন্ডার আরিফুল আর রাহীকে।

শ্রীলংকায় দুর্ভোগের শিকার হয়েছে বাংলাদেশ দল। মাঠের সংকট দেখিয়ে তাদের সোমবারের অনুশীলন বাতিল করে দেয় শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড।লঙ্কান বোর্ডের এমন অপেশাদারি আচরণে হতাশ খেলোয়াড়রা। এনিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন। যদিও এই ব্যাপারে মিডিয়ার সামনে মতামত দেননি বিসিবির কোনো কর্মকর্তা বা কোনো ক্রিকেটার।

উল্লেখ্য ভারতের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচের আগেও পর্যাপ্ত ফ্লাড লাইটের অভাবে টাইগারা অনুশীলন করতে পারেনি। আর এবারও ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচের আগে মাঠের অভাব দেখিয়ে অনুশীলন করতে পারলেন না তারা।

ছবিঃ গুগল