ব্যর্থতার ডায়েরি

আহসান শামীম

বোলার এবং টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যার্থতায় ১৭ রানে ভারতের কাছে হেরে গেল টাইগাররা। ভারত উঠে গেল নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে।নিদাহাস কাপ ফাইনালে দ্বিতীয় দলের জন্য অপেক্ষা করতে হবে ১৬ মার্চ শুক্রবার লঙ্কানদের বিপক্ষে বাংলাদেশের ম্যাচের জন্য। ঐ খেলায় জয়ী দলই ১৮ মার্চ ভারতের বিপক্ষে ফাইনাল খেলবে।আর কোন কারনে ম্যাচটা পরিত্যক্ত হলে লঙ্কানরাই খেলবে ভারতের বিপক্ষে ফাইনাল।

১৭৭ রানের জয়ে লক্ষে ব্যাট হাতে ভারতীয় বোলার ওয়শিংটন সুন্দরের পাওয়ার প্লেতে তিন ওভারে লিটন দাস, সৌম্য আর তামিমের উইকেট তুলে নেওয়ার পর মোটামুটি টাইগাদের জয়ে স্বপ্ন শেষ হয়ে যায়। এরপর ভরসার জায়গা অধিনায়ক  রিয়াদ। ৮ বলে ১১ রান করে লেগ স্পিনার যুবেন্দ্র চহলের বলে বিদায় নেন দলীয় রান  ৬১ রানের মাথায়। মুশফিক আর সাব্বির জুটি শক্ত হাতে দলকে জয়ের স্বপ্ন দেখাতে থাকলেও ২৩ বলে ২৭ রানে সাব্বির ঠাকুরের বলে বোল্ড আউট হয়ে সাজঘরে ফিরলে, মুশফিকের আক্রমনাত্মক ব্যাটিং করে ৪১ বলে অর্ধশতক পুর্ন করেন। মেহেদীকে সঙ্গে নিয়ে শেষ দুই ওভারে জয়ের জন্য ৩৩ রানের টার্গেট। ১৯তম ওভারে ঠাকুরের বলে মাত্র ৫ রান সংগ্রহ করে টাইগার ব্যাটসম্যানরা। শেষ ওভারে দ্বিতীয় বলে মিরাজ আউট হন ৬ বলে ৭ রান করে।মুশফিক অপরাজিত থাকেন ৫৫ বলে ৭২ রানে।১৫৯/৬ রানে থেমে যায় টাইগারদের ইনিংস।

টাইগার বোলারদের উইকেট তুলে নেওয়ার ব্যর্থতায় ২০ ওভারে ভারতের সংগ্রহ ১৭৬/৩। জয়ের জন্য এমন উইকেট আর ভারতের শক্তিশালী বোলিং এর সামনে জয়ের জন্য ১৭৭ রানের টার্গেট আক্ষরিক অর্থেই বিশাল।ভারতে ইনিংসে শেষ ৫ ওভারে রান হয় ৬৯।টাইগারদের একমাত্র বোলার রুবেলই তিন উইকেট নেন।

নিদাহাস ট্রফির গত চার ম্যাচেই টস জিতে প্রতিটা দলই ফিল্ডিং নিয়েছে আর পরে ব্যাট করা দলই জিতেছে প্রতিবার। টস জিতে টাইগার অধিনায়কও আজ বেছে নিলেন ফিল্ডিং।তাসকিনের পরিবর্তে টাইগার একাদশে আজ মাঠে নামেন আবু হায়দার রনী। নিদাহাস ট্রফির চার দিন ছিল দিনভর বৃষ্টি। আজ বুধবার নিদাহাস ট্রফির পঞ্চম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে টাইগাদের দ্বিতীয় ম্যাচের সারাদিন সূর্যের প্রখর তেজ থাকায় সকাল থেকেই পীচ সূর্যের তাপে উত্তপ্ত ছিল।সন্ধ্যা হতেই আকাশ ধারন করে মেঘাচ্ছন্ন চেহারা।

ব্যাট হাতে প্রথম তিন ওভারে টাইগাররা নিয়ন্ত্রিত বোলিং করলেও চতুর্থ ওভার থেকে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের দিকে নিয়ে যায় ভারতের দুই ওপেনার।

ছবিঃ ইএসপিএন