ইতিহাসে স্টুয়ার্ট ব্রড

আহসান শামীম

আজ ২২ মার্চ ২০১৮ ,ইংল্যান্ডের স্টুয়ার্ট ব্রডের বয়স মাত্র ৩১ বছর ২৭১ দিন।অকল্যান্ডে আজ নিউজিল্যান্ডের ওপেনার টম লাথামকে ফিরিয়ে, সবচেয়ে কম বয়সী পেসার হিসেবে টেস্টে ৪০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করলেন।২০১৫ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৩২ বছর ৩৩ দিন বয়সে এই মাইলফলক ছুঁয়েছিলেন

দক্ষিণ আফ্রিকার ডেল স্টেইনের। ইংল্যান্ডের ৪০০ উইকেটের ক্লাবে নাম লেখানো দ্বিতীয় বোলার ব্রড। এর আগে ইংল্যান্ডের হয়ে এই মাইলফলক গড়েছেন কেবল সতীর্থ পেসার জেমস অ্যান্ডারসন। সবমিলিয়ে বিশ্বের মধ্যে ৪০০ উইকেট শিকারি ১৫তম বোলার ব্রড।

অবশ্য সব বোলার বিবেচনায় মুত্তিয়া মুরালিধরন আর হরভজন সিংই কেবল ব্রডের চেয়ে কম বয়সে ৪০০ টেস্ট উইকেটের দেখা পেয়েছেন। মুরালিধরন এই ক্লাবে সবচেয়ে কম বয়সী হিসেবে অধিষ্ঠিত আছেন, এই মাইলফলক গড়ার সময় তার বয়স ছিল ২৯ বছর ২৭০ দিন।

ব্রডের এই সাফল্যের দিনে, অকল্যান্ডে নিউজল্যান্ডের দুই পেসার ট্রেন্ট বোল্ট ও টিম সাউদি ইংল্যান্ডকে ২৩ রানের মধ্যে ৮ উইকেট তুলে নিলে, টেস্টের সর্বনিন্ম রানটা চোখের সামনেই দেখছিল ইংলিশরা। ইংল্যান্ডের ক্রেইগ ওভারটনের অপরাজিত ৩৩ রানের সুবাদে শেষ পর্যন্ত যেতে ৫৮ রানে অলআউট জো রুটের দল। টেস্টে এটা ইংল্যান্ডের ষষ্ঠ সর্বনিম্ন ইনিংস।যা শেষ হতে সময় লাগে ২০.৪ ওভার।

১৮৮৭ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিডনিতে ৪৫ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের চরম অসহায়ত্বের দিন মাত্র দুজন বোলারকে ব্যবহার করে নিউজিল্যান্ড। ট্রেন্ট বোল্ট আর টিম সাউদি মিলেই সবগুলো উইকেট ভাগাভাগি করে নিয়েছেন। এর মধ্যে ৩২ রানে ৬ উইকেট নিয়েছেন বোল্ট, যা বোল্টের ক্যারিয়ার সেরা বোলিং। ২৫ রানে সাউদি নিয়েছেন ৪ উইকেট।

উল্লেখ্য, ১৯৫৫ সালে অকল্যান্ডেই এই ইংলিশদের বিপক্ষে মাত্র ২৬ রানে গুটিয়েছিল কিউইরা। এখন পর্যন্ত সেটাই টেস্টে এক ইনিংসে কোন দলের সর্বনিম্ন সংগ্রহ।টেষ্টের প্রথম দিন শেষ নিউজিল্যান্ডের রান ১৭৫/৩।টেষ্টে স্বাগতিকরা ১১৭ রানে এগিয়ে।

ছবিঃ ইএসপিএন