ভরাডুবি অষ্ট্রেলিয়ার

বল টেম্পারিয়, অজি অধিনায়ক স্মিথ , সহ-অধিনায়ক ওয়ার্নার আর পেসার বেনক্রাফটের ওপর নিষেদ্ধাজ্ঞা, কোচ লেহ্যমানের পদত্যাগ সব মিলিয়ে আলোচিত, সমালোচিত অষ্ট্রেলীয় ক্রিকেট দল দক্ষিন আফ্রিকার বিপক্ষে টেষ্ট সিরিজ হেরেছে। জোহানেসবার্গে চার ম্যাচ সিরিজের শেষ টেস্টে সফরকারী অস্ট্রেলিয়াকে ৪৯২ রানের বড় ব্যবধানে হারালো স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা।চার ম্যাচের সিরিজ ৩-১ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে প্রোটিয়ারা।এবারই প্রথম বারের মতো ঘরের মাঠে অজিদের বিপক্ষে সিরিজ জিতলো দক্ষিণ আফ্রিকা।। অজিদের বিপক্ষে প্রোটিয়াদের এমন সিরিজ জয়ের আনন্দকে দ্বিগুণ করে দিয়েছে দুটা রেকর্ড। রানের হিসেবে এটা দক্ষিণ আফ্রিকার ইতিহাসের সবচেয়ে বড় জয়। টেস্ট ইতিহাসে এটা কোনো দলের চতুর্থ বৃহত্তম জয় হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে। আগে এই মাঠেই ২০০৭ সালে নিউজিল্যান্ডকে ৩৫৮ রানে হারিয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। এটা অস্ট্রেলিয়ার দ্বিতীয় সর্বাধিক রানের ব্যবধানে হারের রেকর্ড।

১৯২৮ সালে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৬৭৫ রানের ব্যবধানে হেরেছিল অজিরা। যা টেস্ট ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ব্যবধানের হারেরও রেকর্ড। এদিকে, জোহানেসবার্গ টেস্টের পঞ্চম দিনে ৬১২ রানের রেকর্ড লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে অজিরা অল আউট হয়েছে মাত্র ১১৯ রানে।

দক্ষিণ আফ্রিকার দুই রেকর্ডের পাশাপাশি  ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের সিরিজে পুরো সিরিজে অসাধারণ বোলিং করা আরেক পেসার ট্রেন্ট বোল্ট সিরিজ সেরার পুরস্কার পেয়েছেন।ইংল্যান্ডের তারকা খেলোয়াড় জেমস অ্যান্ডারসন পেসার হিসেবে , টেস্টে সর্বাধিক ডেলিভারির তালিকায় পেসারদের মাঝে শীর্ষে উঠে গেছেন।

ছবিঃ ইএসপিএন