ঘুরে আসুন বিছানাকান্দি

মাসুদুল হাসান রনি

বর্ষায় ঘুরে আসার সবচেয়ে ভাল সময় বিছানাকান্দি। পাথর, পানি, পাহাড় আর আকাশ নিয়েই যেন বিছানাকান্দি। এখানে আসার পর যে কথাটি সর্বপ্রথম মনে হয় তা হল প্রশান্তি। এই প্রশান্তিটুকু নিমিষেই ভুলিয়ে দেয় প্রতিদিনকার শত গ্লানি। প্রকৃতির সৌন্দর্যের কাছে যেন হার মানতেই হয় নাগরিক সভ্যতাকে। আর এই চরম সত্যটুকু উপলব্ধি করতে হলে আপনাকে চলে আসতে হবে বিছানাকান্দিতে।
সিলেট শহর থেকে বিছনাকান্দির দূরত্ব প্রায় ৬০ কি.মি। যেতে সময় লাগবে প্রায় ২.৩০ ঘন্টা।

জেনে নিন কিভাবে যাওয়া যায় ।

ঢাকা থেকে যেভাবে যাবেনঃ ঢাকা থেকে সিলেট। ট্রেন অথবা বাসে। সিলেট থেকে নগরীর আম্বরখান পয়েন্ট। সেখানে সিএনজি পাওয়া যায়। সিএনজি করে গোয়াইনঘাট হয়ে হাদার বাজার।

সিলেট শহর থেকে প্রথমেই আপনাকে যেতে হবে হাদারপাড় বাজার। হাদারপাড় কয়েকভাবে যাওয়া যায়।

*  রিজার্ভ CNG: আম্বরখানা থেকে CNG রিজার্ভ নিয়ে হাদারপাড় যেতে পারেন। সেক্ষেত্রে CNG ভাড়া নিবে ৬০০-৭০০ টাকা। এক সিএনজিতে ৫ জন যেতে পারবেন।

* লোকাল CNG: আম্বরখানা থেকে লোকালভাবেও হাদারপাড় যেতে পারেন। ভাড়া জনপ্রতি ১৫০ টাকা। আগে ভাড়া ছিল ৭০-৮০ টাকা। কিন্তু রাস্তা খারাপ হওয়াতে এখন ভাড়া বেশি।

সিলেট থেকে গোয়াইন ঘাট- হাদার বাজার হয়ে যেতে হয় বিছানাকান্দি। গোয়াইনঘাট এর পর থেকে শুরু হয় প্রচণ্ড রকমের খারাপ রাস্তা। কোথাও উচু-কোথাও নীচু। কিন্তু রাস্তা বাঁক নিতেই দৃশ্যপট পাল্টায়। দূর থেকে দেখা যায় মেঘে ঢাকা মেঘালয় পাহাড়। পাহাড়ের মধ্যে দূর থেকে দেখা যায় মায়াবতী ঝর্না। দেখে মনে হয় ভ্যানগগ বা রেমব্রান্ট এর আকাঁ কোন শিল্পকর্ম। আকাঁবাকা পথ যেন আর শেষ হয় না। কানে বাজে রবার্ট ফ্রস্টের “But I have promises to keep, And miles to go before I sleep” ।
হাদার পাড় বাজার। বাজার থেকে নৌকা নিয়ে চলে যেতে পারেন বিছানাকান্দি। নৌকায় প্রায় ৩৫ মিনিটের পথ। যেতে যেতে দেখতে পাবেন মেঘালয় এর পাহাড়গুলো। মেঘ আসছে ভেসে ভেসে। অপূর্ব এ দ্রশ্য !
চেরাপুঞ্জির মেঘ। এই মেঘ গুলোই বোধহয় ‘পরদেশি মেঘ’। ঝুলন্ত সেতুটা পাড় হলেই চলে যাওয়া যায় মেঘালয়। তারপরেই ‘শেষের কবিতার’ শিলং। কষ্টকর যাত্রার ক্লান্তি নিমিষেই চলে যাবে পাহাড়ের হাতছানিতে। মেঘে ঢাকা পাহাড় যেন ডাকছে আপনাকেই।

হাদার বাজার থেকে নৌকায় বিছানাকান্দি। নৌকা পথে দূরত্ব্ব কম কিন্তু ভাড়া বেশি। ১১০০ টাকা পরবে রিজার্ভ। বড় নৌকা অবশ্য । ছোট নৌকাও পাবেন।

বিছাকান্দি ভ্রমণের উপযুক্ত সময় বর্ষাকাল। সঙ্গে ছাতা, রেইনকোট নিতে ভুলবেন না।

নদী,পাথর ও পাহাড় ছাড়া দেখবেন কি কি দেখবেনঃ

*বিছনাকান্দি

*পাংথুমাই ঝর্ণা

*লক্ষণছড়া

*কুলুমছড়া

বিছানাকান্দিতে খুব ভাল হোটেল নেই। তাই সিলেটে থাকাই ভাল। সিলেট থেকে সকাল সকাল রওয়ানা দিলে দিনে দিনে ফেরত আসা যাবে।
এছাড়া যদি আপনি এখানে আশেপাশে থাকতে চান তবে জৈন্তাপুর/তামাবিলে বেশ কিছু রিসোর্ট রয়েছে।তার জন্য আপনাকে আবার হাদারপাড় থেকে গোয়াইনঘাট আসতে হবে। গোয়াইনঘাট থেকে যেতে হবে সারিঘাট। সিএনজি ,লেগুনাতে যেতে পারেন ।জনপ্রতি ভাড়া গুনতে হবে ৬০ টাকা।

ছবি: গুগল