বাদ ছয়

আহসান শামীম

বিসিবি’র কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পরলেন, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, ইমরুল কায়েস, তাসকিন আহমেদ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত আর রাব্বি। গত বুধবার বিসিবির পরিচালনা পর্ষদের সভা শেষে নতুন মেয়াদের জন্য কেন্দ্রীয় চুক্তিভুক্ত খেলোয়াড়দের তালিকা প্রকাশ করা হয়। আগের চুক্তিতে ১৬জন ক্রিকেটার থাকলেও এবার চুক্তি করা হয় ১০ জনের।তালিকা থেকে বাদ  ছয় ক্রিকেটার। আর তাদের পাশেই দাঁড়ালেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তাজা। সৌম্য-সাব্বিরদের আবারো ফর্ম ফিরে পেতে সিনিয়র ক্রিকেটাররা সব রকমের সাহায্য করবেন বলেও তিনি জানান।

আজ দুপুরে আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইপিডিসির সাথে নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে নড়াইল এক্সপ্রেস মাশরাফি বলেন, ” একজন খেলোয়াড়ের জন্য বেতন অনেক গুরুত্বপূর্ণ। বেশির ভাগ খেলোয়াড় আসে মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে। পরিবারের ওপর বেতন কিংবা খেলার অনেক প্রভাব থাকে। তবুও সিদ্ধান্তটা বোর্ডের। কাকে বেতন দেবে না-দেবে এটা তাদের সিদ্ধান্ত। একজন খেলোয়াড়ের জন্য চুক্তিতে থাকা খূব গুরুত্বপূর্ণ। একই সাথে তাকে ততটুকু আবেগ দিয়ে খেলতেও হবে। আমি বিশ্বাস করি সবাই সেভাবে খেলছে। পারফরম্যান্স সব সময় একরকম গ্রাফে থাকে না। কারও কখনো ভালো যায়, কারও কখনো খারাপ। পারফরম্যান্সের ওপর, বেতন নির্ভর করে এটাও সত্য।”

এদিকে, ফিকার পরিসংখ্যান বলছে, যতই সময় গড়াচ্ছে ক্রিকেটের সবচেয়ে পুরনো ভার্সন টেস্ট ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা কমছে। সমান তালে বাড়ছে টি-টুয়েন্টির জনপ্রিয়তা। দেশের হয়ে কেন্দ্রীয় চুক্তির অধীনে ক্রিকেট খেলার চেয়ে স্বাধীনভাবে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট খেলে বেড়াতে চাইছে সিংহভাগ তরুন ক্রিকেটার।

ফিকার রিপোর্টে বলা হয়েছে , বাংলাদেশে কেন্দ্রীয় চুক্তি ও ঘরোয়া ক্রিকেটের চুক্তি আন্তর্জাতিক মানের তুলনায় অনেক কম। অন্যান্য টেস্ট খেলুড়ে দেশের তুলনায় বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় চুক্তি ভুক্ত ও ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলা ক্রিকেটাররা বলতে গেলে কিছুই পায় না।আফগানিস্থান ও আয়ারল্যান্ডের অবস্থা বাংলাদেশের মত। এছাড়া বাকী টেস্ট খেলুড়ে দেশের কেন্দ্রীয় চুক্তি ভুক্ত ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক আন্তর্জাতিক মানের না হলেও কাছাকাছি। দেশে ক্রিকেটার্স অ্যাসসিয়েশনসের থাকার পরও বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা এত কম পারিশ্রমিক পাচ্ছে।ঘরোয়া ক্রিকেটারদের চেয়ে ভালো আছেন দেশের তারকা ক্রিকেটাররা। ফিকার রিপোর্ট বলছে বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটাররা আন্তর্জাতিক মানের পারিশ্রমিক পাচ্ছে। সেটা গুটিকয়েক ক্রিকেটারের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।যা বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য অশিনি সংকেত।

ছবিঃ গুগল