তারুণ্য বাঁচাতে ফুটবল ওষুধ

ফারহাদ টিটো

যদ্দূর মনে পড়ে, বাংলাদেশে আর্জেন্টিনা ফুটবল দলের সমর্থনের শুরু ‘৮৬র বিশ্বকাপ থেকে। ম্যারাডোনা দিয়েই আর্জেন্টিনা ভালোবাসার উত্থান বাংলাদেশে, এমনকি সারা দুনিয়ায় ।
তার আগে দেশে ব্রাজিলের সাপোর্ট ছিলো একচেটিয়া। তখন ইউরোপিয়ান ফুটবল দলগুলির মধ্যে হল্যান্ড, পোল্যান্ড, ইংল্যান্ড, জার্মানি, রাশিয়া, ফ্রান্সের কিছু সাপোর্টার ছিলো । কিছু মানুষ চিনতো মেক্সিকো,উরুগুয়ে, পারাগুয়েকেও । আর্জেন্টিনা ছিলো বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক ফুটবল সমর্থকদের কাছে তেমনই একটা দল ।
ম্যারাডোনা যুগ শুরুর পর হু হু করে আর্জেন্টিনা সমর্থক বেড়েছে বাংলাদেশে, বিশ্বের সব দেশে । আজ ম্যারাডোনার সেই বসিয়ে যাওয়া ভিত্তি প্রস্তরেই আকাশছোঁয়া দালান তুলছেন লিও মেসি’রা ।
এখন,গত ত্রিশ বছরে বাংলাদেশে আর্জেন্টিনা সমর্থক ব্রাজিল সমর্থকদের সমানে সমান, হয়তো কিছু কম বা কিছু বেশি ।
ব্রাজিল সমর্থকরা বরাবরই তারকার চাইতে বেশি ভক্ত তাদের ছান্দিক ফুটবলের । এক বিশ্বকাপে, এক খেলায় সাত গোল খাওয়ার বিস্ময়কর রেজাল্ট দিয়ে ব্রাজিলের ফুটবল ঐতিহ্যকে খাটো করে দেখার কোনো সুযোগ নেই । বিশ্বকাপে তাদের ইতিহাস এত সমৃদ্ধ যে এমন ঘটনা (জার্মানির কাছে সাত গোলের পরাজয়) নিছকই একটা দুর্ঘটনা ।
অন্যদিকে মেসির মতো অন্যতম সর্বকাল সেরা ফুটবলার যে দলে খেলেন সেই দল জনপ্রিয় হবেনা তো কোন দল হবে ।
বিশ্বকাপ জয়ের হিসেবে আর্জেন্টিনা বড় এক দুর্ভাগা দল । এত কম বা এত বছর বিশ্বকাপ না জেতা এই দলের জন্য বেমানানই ।

আর্জেন্টিনা আর ব্রাজিল সমর্থকদের উন্মাদনা, একে অন্যের প্রতি ক্ষ্যাপাটে মনোভাব খুব মজার ব্যাপার বাংলাদেশে । এক দলের সমর্থক গোষ্ঠী যখন আরেক দলের আইকন প্লেয়ার নিয়ে ট্রল করে তখন, এক দল আরেক দলের রেজাল্ট নিয়ে ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ করে তখন ব্যাপারটা খুব উপভোগ্য হয়ে ওঠে নিউট্রাল অ্যাংগেল থেকে ।
আর এক মাসের মধ্যেই ফিফা বিশ্বকাপ শুরু হচ্ছে রাশিয়ায় । আমাদের মানুষেরা প্রানভরে ব্রাজিল সমর্থন করবে, আর্জেন্টিনা সমর্থন করবে, কেউ কেউ সমর্থন দেবে ইউরোপিয়ান সকার জায়ান্টদের ।

আমাদের কি করার আছে আর ! ক্রিকেটে পাকিস্তান আর ইন্ডিয়াকে সাপোর্ট দিতে দিতে ক্লান্ত বাংলাদেশী দর্শকরা এক সময় নিজের দেশকেই পেয়ে গেছে বিশ্বকাপে, বিশ্বসেরাদের কাতারে। এখন আমাদের নিজের দলকে সাপোর্ট করতে করতেই দিন শেষ হয়ে যায়….অন্যের খবর নেয়ার সময় আছে ?
ফুটবলে হয়তো কোনোদিনই এমন দিন আসবে না বাংলাদেশের । বিশ্বকাপ খেলার টিকেট দিয়ে কিছু দেশকে জন্ম দেননি বিধাতা.. এটা নিশ্চিত । বাংলাদেশ তাদের অন্যতম- আমার সন্দেহ নাই ।
সুতরাং আমাদের ব্রাজিল আর্জেন্টিনা নিয়েই থাকতে হবে অনন্তকাল ।
তাও ভালো । নোংরা রাজনীতি, ড্রাগ, সন্ত্রাস থেকে তরুণ প্রজন্মকে বাঁচিয়ে রাখতে ফুটবলের চেয়ে বড় ওষুধ নেই । নেই ক্রিকেটের চেয়েও । অথবা অন্য কোনো স্পোর্টসের চেয়ে ।

ছবি: গুগল