বিকাশ অ্যাপ এলো চমৎকার সব সুবিধা নিয়ে!

মমিনুল ইসলাম

বেশ কিছুদিন ধরেই মোবাইল ভিত্তিক অর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বিকাশ তাদের মোবাইল অ্যাপ উন্মোচনের ব্যাপারে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। অবশেষে আজ কোম্পানিটি বিকাশ মোবাইল অ্যাপ এন্ড্রয়েড ও আইওএস এর জন্য রিলিজ করেছে

মোবাইল ব্যাংকিংয়ে বিকাশ এক নতুন দিগন্তের সূচনা করেছিল। ব্র্যাক ব্যাংকের কাছে ৫১% মালিকানা থাকা বিকাশ মূলত ফোনের ডায়ালপ্যাডে ইউএসএসডি নির্ভর হওয়াতে সব ফোনেই এই সার্ভিস ব্যবহার করা যায়। কিন্তু বর্তমান স্মার্টফোনের যুগে এই ব্যবস্থাটাকে আরও সহজ করা সম্ভব মোবাইল অ্যাপ এর মাধ্যমে, যা অনেক আগে থেকেই গ্রাহকদের দাবি ছিল।

আর এখন গ্রাহকদের দাবির প্রেক্ষিতে তাদেরই সাজেস্ট করা বিভিন্ন ফিচার নিয়ে সাজানো হয়েছে বিকাশ অ্যাপটিকে।

মোবাইলে বিকাশ অ্যাপ ইন্সটল করার পর প্রথমেই এটি আপনাকে আপনার বিকাশ একাউন্ট নম্বর ও এসএমএসে পাঠানো পিন প্রবেশ করতে বলবে। তারপর এটা আপনার নাম ও প্রোফাইল পিকচার আপলোড করতে বলবে। আপনি চাইলে এটা স্কিপও করতে পারেন। অতঃপর এটা আপনার কন্টাক্ট লিস্টে এক্সেস করার পারমিশন চাইবে। পারমিশন দিয়ে দিলেই আপনার বিকাশ অ্যাপ ব্যবহারের জন্য তৈরি।

তারপর থেকে প্রতিবার অ্যাপ ওপেন করার সময় এটা আপনার পিন নম্বর চাইবে। প্রতিবার পিন দেয়াটা একটু ঝামেলার মনে হলেও আপনার একাউন্টের সিকিউরিটির জন্যই এই সিস্টেম করা হয়েছে।

বিকাশ অ্যাপ ওপেন করলেই আপনি হোম স্ক্রিনে ট্র্যাডিশনাল ইউএসএসডি মেন্যুর ফিচারগুলো যেমন, সেন্ড মানি, রিচার্জ, পেমেন্ট ইত্যাদি টাইল আকারে দেখতে পাবেন। সঙ্গে এক্সট্রা হিসেবে রয়েছে রিকোয়েস্ট মানি ফিচার। আর স্ক্রিনের একদম উপরে আপনার নাম প্রোফাইল পিকচার ও ব্যাল্যান্স এর উইজেট রয়েছে।

বিকাশ অ্যাপ এর ইউজার ইন্টারফেইস যথেষ্ট সিম্পল ও ক্লিন রাখা হয়েছে। আশা করা যায় সব বয়সের মানুষই অ্যাপটি খুব সুন্দরভাবে ও সহজে ব্যবহার করতে পারবেন। উপরে ডানদিকে একটি মেন্যু বাটন রয়েছে যাতে ক্লিক করে আপনার ট্রানজেকশন হিস্ট্রি সহ বিভিন্ন অপশন পাবেন।

বিকাশ অ্যাপ এর সবচেয়ে বড় যে উপকারিতা সেটি হলো আপনি সেন্ড মানি ও মোবাইল রিচার্জের ক্ষেত্রে নম্বর টাইপ করার বদলে সরাসরি আপনার কন্টাক্ট লিস্ট থেকে নম্বর সিলেক্ট করতে পারবেন। আর নিজের নাম্বারে এক ক্লিকে রিচার্জ করার সিস্টেম তো আছেই।

পাশাপাশি ক্যাশআউট আর পেমেন্ট এর ক্ষেত্রে দোকানে গিয়ে আপনাকে এখন আর এজেন্ট এর নম্বর দেখে টাইপ করে বারবার চেক করার ঝামেলাও থাকছেনা। কারণ এজেন্টের কাছে গিয়ে তার দোকানে ঝুলানো কিউআর কোডটি বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে স্ক্যান করেই আপনি টাকা ক্যাশআউট করতে পারবেন। আশা করি খুব শীঘ্রই সব এজেন্টের কাছে তাদের কিউআর কোড পাওয়া যাবে। এই ফিচারটি ই আমার কাছে সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে। তাছাড়া রিকোয়েস্ট মানি ফিচারের মাধ্যমে আপনি বিকাশ একাউন্টধারী কাউকে নির্দিষ্ট টাকা পাঠানোর রিকোয়েস্ট করতে পারবেন। তাছাড়া স্টেটমেন্ট অপশনে গিয়ে আপনি কার কার সাথে লেনদেন করেছেন তা তাদের নাম ও প্রোফাইল পিকচার সহ দেখতে পাবেন।

ছবি: গুগল