বাতাসে উড়ছে ভবিষ্যদ্বাণী

আহসান শামীম: ব্রাজিল বিশ্বকাপ জিতবে এমন  ভবিষ্যদ্ববাণী করেছে আমেরিকার এক সমীক্ষা সংস্থা ‘গ্রেসনোট’ । তারা ‘ইলো সিস্টেম’ নামে এক বিশেষ প্রযুক্তির মাধ্যমে এবারের বিশ্বকাপে অংশ নেয়া প্রত্যেক দলের শক্তি-দুর্বলতা নিয়ে পরীক্ষা চালিয়েছে। আর তাদের এই পরীক্ষায় অন্য দলের তুলনায় ব্রাজিলের জয়ের সম্ভাবনা ২১ শতাংশ বেশি।

স্কিলের ভিত্তিতে গ্রেসনোট ব্রাজিলকে একশ‘র মধ্যে দিয়েছে ৯০। স্পেন পেয়েছে ৭৬ নম্বর। জার্মানিকে তারা দিয়েছে ৭৯। আর্জেন্টিনা ৮২। উরুগুয়ে ও কলম্বিয়াকে ৭৭ নম্বর দিয়েছে তারা।জার্মানি, আর্জেন্টিনার চেয়ে স্পেন কম পেলেও ব্রাজিলের সঙ্গে ফাইনালিস্ট হিসেবে স্পেনকেই রাখছে তাদের গবেষণার ফল। তাদের যুক্তি, বিশ্বকাপ জিততে যে এক্স ফ্যাক্টর প্রয়োজন সেটা এবারের স্পেন দলে অনেক বেশি রয়েছে।

ভারতীয় প্রখ্যাত জ্যোতির্বিদ গ্রিনস্টোন লোবো বিশ্বকাপের ভবিষ্যতবানীর ব্যাপারে কথা বলছেন নক্ষত্র্র বিচার করে। তার ভাষায়, এ বছর বিশ্বকাপ জিতবে সেই দেশ যে দেশের অধিনায়কের জন্ম ১৯৮৬ বা ১৯৮৭ সালে। কারণ ওই বছরে জন্মালে গ্রহ নক্ষত্র নাকি বাড়তি সুবিধা পাইয়ে দেবে অধিনায়কদের। লোবোর দাবি, ফ্রান্স এবং আর্জেন্টিনা দুটি দলেরই প্রায় সমান সুযোগ রয়েছে বিশ্বকাপ জেতার। ফ্রান্সের থেকে আর্জেন্টিনা কিছুটা এগিয়ে। কারণ, ফ্রান্সের কোচ দিদিয়ের দেশাম ফুটবলার হিসেবে বিশ্বকাপ জিতে নিয়েছেন ইতিমধ্যেই, সে তুলনায় আর্জেন্টিনার জর্জে সাম্পাওলি এখনও বড় কোনও ট্রফি জেতেননি তাই অঙ্কের বিচারে এবার আর্জেন্টিনারই চ্যাম্পিয়ন হওয়া উচিত।

তবে খেলার শুরুর আগে ব্রাজিলের সমর্থকদের সুখবর শুনিয়েছেন অস্ট্রিয়ার একদল সংখ্যাতত্ত্ববিদ। তারা বলছেন,রাশিয়া থেকে বিশ্বকাপ নিয়ে ঘরে ফিরবেন নেইমাররা। গত আসরে জার্মানির বিপক্ষে সেই দুঃসহ স্মৃতি এখনো হয়ত তাড়া করে বেড়ায় ব্রাজিল ও তার ভক্ত-সমর্থকদের।সংখ্যাতত্ত্ববিদরা মনে করেন ব্রাজিল ফাইনালে লড়বে জার্মানির বিপক্ষে।এবার নতুন উদ্যোমে মাঠে নামবে ব্রাজিল, বাছাইপর্ব থেকে তারাই প্রথম নিশ্চিত করেছিল বিশ্বকাপ টিকেট। নেইমার তো এক সাক্ষাৎকারে বলেই দিয়েছেন, এবার চ্যাম্পিয়ন হবো আমরাই।

এইসব গ্রহ নক্ষত্র গণনার পাশাপাশি কোচদের আগাম মন্তব্য উঠে এসেছে গলমাধ্যমে। পর্তুগালের নাগরিক হলেও, এখন মরিনহো  ইংল্যান্ড দলের কোটের দায়িত্বে আছেন।  এ বারের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড ভাল করবে বলেও ঘোষণা দিলেন মরিনহো। ব্রিটিশ প্রচারমাধ্যমের কাছে আসন্ন বিশ্বকাপ নিয়ে নিজের ভবিষ্যদ্বাণী করতে গিয়ে তিনি বলেন, আমি আবেগপ্রবণ না হতে চাইলেও হয়ে  পড়েছি। আমি চাই আমার ফুটবলাররা জিতুক। আবার চাই কিছু ফুটবলারের তাড়াতাড়ি ছুটি হোক। ইংল্যান্ডের এবার ভালো সম্ভাবনা দেখছি। ইংলিশদের অনেক ফুটবলারই এবার লিগে খুব ভালো পারফরমেন্স করেছে।

ইংল্যান্ড ও স্পেনের সঙ্গে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানিকেও সেরা হবার কাতারে রেখেছেন মরিনহো।বিশ্ব ফুটবলের দুই জনপ্রিয় দল আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের কোনো সম্ভাবনা দেখছেন না নিজেকে এক নম্বর কোচ হিসেবে দাবি করা ৫৫ বছর বয়সী মরিনহো।

ইংল্যান্ডের পর স্পেনকে নিজের পছন্দের তালিকায় রাখছেন মরিনহো। গ্রুপ পর্বে স্পেনের প্রধান প্রতিপক্ষ পর্তুগাল, মরিনহোর জন্মভূমি। তারপরও ‘বি’ গ্রুপে স্পেনই সবার উপরে থাকবে বলে বলেন তিনি মনে করছেন।