নকিয়া এক্স৬ এলো ১৯:৯ রেশিওর নচ স্ক্রিন নিয়ে

সাইফ তনয় (টেক ব্লগার)

অনেকটা লোকচক্ষুর অন্তরালেই চীনে রিলিজ হলো নকিয়ার প্রথম নচওয়ালা বেজেললেস ডিজাইনের নকিয়া এক্স৬ এন্ড্রয়েড স্মার্টফোন। এইচএমডি গ্লোবাল কর্তৃক নকিয়া ফোন তৈরি শুরুর পর থেকেই তারা কোনো এক কারণে তাদের নতুন মডেলের ফোন প্রথমে মিডিয়া কাভারেজ ছাড়াই চায়নাতে রিলিজ করে থাকে। সাধারণত এর কিছুদিন পর সেটা ঘটা করে গ্লোবালি রিলিজ করা হয়। নকিয়া এক্স ৬ এর ক্ষেত্রেও সেই পথেই হাঁটতে যাচ্ছে এইচএমডি।
নকিয়া এক্স৬ এ রয়েছে ৫.৮ ইঞ্চি ফুল এইচডি বেজেললেস ও নচওয়ালা ডিসপ্লে। সামনের দিকে তাই দেখতে অনেকটা আইফোন টেন এর মতই লাগে। তবে এস্পেক্ট রেশিওর ক্ষেত্রে তারা ট্রেন্ডি নতুন ফোনগুলোর ১৮:৯ রেশিও তে না গিয়ে ১৯:৯ রেশিওর ডিসপ্লে দিয়েছে। যার ফলে ফোনটির ডিসপ্লে বড় হলেও হাতে নিলে বা ব্যবহার করতে বেগ পেতে হবে না। স্ক্রিনে প্রোটেকশন হিসেবে আছে কর্নিং গরিলা গ্লাস ৩।
নকিয়া এক্স৬ ফোনে ব্যবহৃত হয়েছে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৬৩৬ চিপসেট যা পারফরমেন্স ও পাওয়ার এফিসিয়েন্সি দুই দিক থেকেই ভালো। শাওমিও তাদের রেডমি নোট ৫ ফোনে একই চিপ ব্যবহার করেছে। সাথে ৪ ও ৬ জিবি র‍্যাম নিয়ে আসবে ফোনটি। স্টোরেজের ক্ষেত্রেও এতে দুটি ভ্যারিয়েন্ট আসবে যার একটিতে থাকবে ৩২ জিবি ও অন্যটিতে ৬৪ জিবি স্টোরেজ। সাথে ২৫৬ জিবি পর্যন্ত মেমোরি কার্ড ব্যবহারের সুযোগও থাকছে।

নকিয়ার অন্যান্য ডুয়াল ক্যামেরা ফোনের মতো এক্স৬ এ কার্ল জাইস এর অপটিক্স না ব্যবহার করলেও ক্যামেরা সেক্টরেও ভালো কিছুই নিয়ে এসেছে ফোনটি। এর পেছনে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল রেগুলার ক্যামেরা সেন্সর ও সাথে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেল মনোক্রোম সেন্সর। আর সামনে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। নকিয়া দাবি করছে তারা এর ক্যামেরাতে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স প্রয়োগ করেছে যার ফলে এটি অটোমেটিক সিন ডিটেক্ট করে ইফেক্ট দিতে পারে পাশাপাশি পোরট্রেট এর জন্য ভালো বোকেহ ইফেক্টও দিতে পারবে।
নকিয়া এক্স সিক্স ফোনে রয়েছে ৩০৬০ মিলিএম্প এর ব্যাটারি যা ডিভাইসটির স্টক এন্ড্রয়েডে ভালোই ব্যাকআপ দিবে আশা করা যায়।

উলেখযোগ্য ফিচার হিসেবে ফোনটিতে আরও রয়েছে ফিংরাপ্রিন্ট সেন্সর, ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট, ব্লুটুথ ৫.০ এবং ৩.৫ মিমি হেডফোন জ্যাক।

সাদা, কালো ও নীল তিনটি রঙ এ গ্লাস বডির এই ফোনটি বাজারে আসবে। বক্সের ভিতরে একটি প্রোটেক্টিভ কাভারও দেয়া থাকবে। দামের ক্ষেত্রেও এবার নকিয়া (পড়ুন এইচএমডি) যথেষ্ট উদার। সবচেয়ে বেসিক বান্ডেল ৪ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি স্টোরেজ নিয়ে এর দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১৩০০ ইউয়ান যা প্রায় ২০০ মার্কিন ডলারের মত। তবে গ্লোবাল রিলিজে অন্যান্য দেশে দাম কেমন হবে সেটাই দেখার বিষয়।

নকিয়া এক্স ৬ মূলত মিড রেঞ্জ বাজারে শাওমির রেডমি সিরিজ এর সাথে প্রতিযোগিতা করতেই এসেছে। কম দামে ভালো স্পেসিফিকেশন দিয়ে রেডমি ফোনগুলো খুব ভালোভাবেই বাজার ধরতে পেরেছে। আর সম্প্রতি রিলিজ হওয়া রেডমি ৫ এ ডুয়াল ক্যামেরা, বেজেললেস ডিজাইন দিয়ে ক্রেতাদের দৃষ্টি প্রায় পুরোটাই শাওমির দিকে। তাই এশিয়ার বাজারে মিডরেঞ্জ এর জয়জয়কার দেখেই নকিয়াও তাদের ডুয়াল ক্যামেরা আর নচওয়ালা ডিজাইন নিয়ে রেডমি ৫, অনার ৯ লাইট কিংবা জেনফোন ম্যাক্স প্রো এর সাথে ভালোই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে বলে আশা করা যায়।

নকিয়া এক্স৬ ফোনটি শুধুমাত্র চীনের জন্যই আপাতত রিলিজ করা হয়েছে এবং এটিতে চীনে ব্যবহারোপযোগী গুগল প্লে সার্ভিস বিবর্জিত এন্ড্রয়েড অরিও এর লেটেস্ট প্যাচ ইন্সটল করা আছে। আশা করা যায় খুব শীঘ্রই বড় কোন ইভেন্টে এর গ্লোবাল রিলিজ হবে।