নাশতার টেবিলে…

পারভীন আকতার

খেতে পছন্দ করেন না এমন মানুষ খুব কমই আছেন।আর একটু ভিন্ন ধরনের খাবার হলে তো কথাই নেই।আর তাই অনেকের শখই থাকে নতুন নতুন রেসেপির সন্ধান করা।রান্নার বই থেকে ইউটিউব সব জায়গাতেই তাদের অবাধ বিচরণ।তাদের মতো সবার কথা মাথায় রেখেই এবারের হেঁশেলে রেসেপি পাঠিয়েছেন পারভীন আকতার ।

চিকেন চিজ আলুুচপ

উপকরণ:

চিকেন পুরের জন্য যা যা লাগবে: চিকেন ব্রেস্ট – ১ পিস ( বুকের মাংসের এক পাশ) , সয়া সস- ১ টে চা , সাদা গোল মরিচ গুড়ো – হাফ চা চামচ, জিরে গুড়ো – ১ চা চামচ, মৌরি গুড়ো – ১ চা চামচ, সরিষা গুড়ো – হাফ চা চামচ, পেয়াজ কুচি – ১ টে চামচ,  আদা রসুন বাটা – ১ চা চামচ, লবন – স্বাদমত, তেল – ১ টে চামচ

চিকেন চিজ আলুুচপ

চপের জন্য যা যা লাগবে: সেদ্ধ চটকানো আলু -৩/৪ টি (মাঝারি সাইজ),চিলি ফ্লেকস – ১ চামচ, লবন স্বাদমত, চাট মশলা -সামান্য ,গ্রেট করা চিজ – ২/৩ টেবিল চামচ, পুদিনা কুচি/ ধনেপাতা কুচি – স্বাদ মত, ব্রেডক্রাম্ব – ১ কাপ পরিমান, ফেটানো ডিম – ১ টা, ভাজার জন্য পরিমানমত তেল।

প্রণালী:

প্রথমে বুকের মাংসটা ছোট ছোট পিস করে কেটে তেল ছাড়া সব মশলা মাখিয়ে মেরিনেট করে রাখুন ১০ /১৫ মিনিট। এবার প্যানে তেল গরম করে চিকেন শুকনো শুকনো করে রান্না করুন। এবার আলু, চিলি ফ্লেকস, চাট মশলা, পুদিনা কুচি আর লবন দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে চপের সাইজে বানিয়ে ভিতরে চিকেন আর চিজ দিয়ে চ্যাপ্টা সেইপ করে ডিমে চুবিয়ে ব্রেডক্রাম্বে গড়িয়ে ডুবো তেলে সোনালি করে ভেজে নিতে হবে… চুলার আচ মাঝারি থাকবে।এরপর যে কোন সসের সঙ্গে গরমগরম পরিবেশন করুন চিকেন চিজ আলুর চপ।

চিকেন হালিম

চিকেন হালিম

উপকরণ:

চিকেন ১ কেজি ( ৭/৮পিস) ~পেয়াজ বেরেসতা – ১ কাপের ৪ ভাগের ৩ ভাগ / কাপ ~রাঁধুনী হালিম মিক্স ডাল – ১ কাপ পরিমান ~পেয়াজ বাটা – ১ কাপ ~আদা রসুন বাটা ২ টেবিল চামচ ~সরিষা গুড়া – ১ চা চামচ ~ধনে গুড়া – ১ টে চা ~জিরার গুড়া – ১ টে চা ~গোল মরিচ গুড়া – হাফ চা চা ~কাচা মরিচ ফালি ৪/৫ টি ~আদা কুচি – ১ টেবিল চামচ ~জয়িত্রী, জায়ফল গুড়ো ১ চিমটি ~ চিলি ফ্লেকস – সামান্য ~ গরম মশলার গুড়ো – হাফ চা চা ~তেল -পরিমান মত ~আস্ত এলাচ ২টো + দারূচিনি ১ টুকরা + তেজপাতা ১ টা + লবংগ ২/৩ টি ~মেথি গুড়ো – হাফ চা চামচ ~লবন – স্বাদমত ~ঘি – ১ টেবিল চামচ~ধনে পাতা কুচি / পুদিনা কুচি.. পরিমানমতো।

প্রণালী:

প্রথমে মিক্স ডাল কুসুম গরম পানিতে ভিজিয়ে রেখে দিতে হবে ৩/৪ ঘন্টা।  ডাল মিক্স তিনগুন পরিমান পানি দিয়ে অারেকটা প্যানে সেদ্ধ করে নিতে হবে। এরপর চুলায় প্যান গরম হলে তেল দিয়ে আস্ত গরম মশলা ফোঁড়ন দিয়ে পেয়াজ বাটা দিয়ে কষিয়ে আদা+ রসুন বাটা দিয়ে কষিয়ে সব গুড়ো মশলা একটু পানি দিয়ে কষিয়ে নিতে হবে। মশলা কষে তেল উপরে উঠে আসলে মাংস দিয়ে কষিয়ে রান্না করতে হবে. লবন দিতে হবে। মাংস রান্না হলে অর্ধেক পেয়াজ বেরেস্তা দিয়ে দিতে হবে। ডাল সেদ্ধ হলে মাংসে ভাল করে মিশিয়ে অল্প আঁচে রান্না করতে হবে আরো ১৫/ ২০ মিনিট। লবন চেক করে নিতে হবে । সব একসঙ্গে মিশে হালিম হয়ে গেলে কাচা মরিচ ফালি, ঘি দিয়ে নামিয়ে পুদিনা পাতাকুচি আদাকুচি আর বেরেস্তা দিয়ে উপরে সাজিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।সঙ্গে শসা কুচি, লেবুর রস ছড়িয়ে এর স্বাদ বাড়াতে পারেন দ্বিগুন।

দই পুডিং

দই পুডিং

উপকরণ:

পানি ঝরানো টক / মিস্টি দই – ২ কাপ, চিনি – ১ কাপ ( মিস্টি দই হলে চিনি বুঝে দিতে হবে ), ডিম – ৪/৫ টা ( রুম টেম্পারেচারে রাখা) ফ্রেশ ক্রিম – হাফ কাপ ( না থাকলে ঘন দুধ দিলে ও হবে ) ভ্যানিলা এসেন্স – হাফ চা চামচ, ক্যারামেল করার জন্য লাগবে – হাফ কাপ চিনি, পানি ২/৩ টেবিল চামচ, ঘি – ১ চা চামচ।

প্রণালী:

যে বাটিতে পুডিং করবো সে বাটিতে চিনি, পানি আর ঘি দিয়ে চুলায় হালকা আচে ক্যারামেল করে নিতে হবে। সোনালী রং হলে নামিয়ে ঠান্ডা করে নিবোন। প্রথমে ডিম আর চিনি বিট করতে হবে হালকা ভাবে চিনি গলে যাওয়া পর্যন্ত। এবার দই আর ক্রিম ভালো করে ফেটিয়ে নিতে হবে। এখন ডিম আর ভ্যানিলা মিশিয়ে নিতে হবে। ক্যারামেল বাটিতে মিশ্রন ছাকনি দিয়ে ছেকে ঢেলে দিতে হবে ।এবার হাড়িতে পানি দিতে হবে একটা স্ট্যান্ড বসিয়ে পুডিং বাটি ঢাকনা লাগিয়ে বসিয়ে দিতে হবে। পানি যেন বাটির মাঝামাঝি থাকে এর উপর যেন না হয়। এবার হাড়ির ঢাকনা লাগিয়ে এভাবে মাঝারি আচে ৩০ /৩৫ মিনিট স্টীম করে নিতে হবে। এটা রাইস কুকারে ও সহজে করা যায়।

বিঃদ্রঃ দই অবশ্যই পাতলা কাপড়ে বেঁধে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে…

রুহ আফজা ঠান্ডাই

উপকরণ:

রুহ আফজা – ১/২ বা হাফ কাপ, মালাই দুধ – হাফ লিটার, কনডেন্সন্ড মিল্ক – ১/২ বা হাফ কাপ, বরফ – ৬/৭ টি,  চিনি (ঐচ্ছিক) ১ টেবিল চামচ,  কাজু বাদাম – গুড়ো করা – ১/২ বা হাফ কাপ, ~খেজুর – ১/২ বা হাফ কাপ।

প্রণালী:
প্রথমে এক লিটার দুধ জ্বাল দিয়ে হাফ কেজি করে ঠান্ডা করে নিতে হবে… ঐ দুধে খেজুর ধুয়ে বিচি ফেলে ভিজিয়ে রাখতে হবে আধা ঘন্টা… এবার উপরের সব উপকরন এক সঙ্গে ভালো করে ব্লেন্ড করে ফ্রিজে ঠান্ডা করে পরিবেশন করুন।