মাশরাফির হাত ধরে জয় ফিরলো ঘরে

আহসান শামীম

অধিনায়ক মাশরাফি, ওয়েস্ট ইন্ডিজে গেলেন আর জয় করলেন বাংলাদেশের আরেকটি স্বপ্ন। অধিনায়ক মাশরাফির হাত ধরেই, দীর্ঘ ৯ বছর পর ইন্ডিজের মাটিতে সিরিজ জয়ের আনন্দ ফিরে এলো এ দেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের হৃদয়ে। এর আগে ২০০৯ সালে এই ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতেই শেষবারের মতো ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল বাংলাদেশ। এবার নয় বছর পরে আবার ২-১ ম্যাচে সিরিজ জয় করলো বাংলাদেশ ।

সেন্ট কিটসে সিরিজ নির্ধারণী তৃতীয় ম্যাচটা জয়ের জন্য দরকার ছিল, টসে জিতে ব্যাট হাতে তিনশ’র বেশী রান তুলে ফেলা। এই মাঠের ইতিহাসও তাই বলে। টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে তামিমের সেঞ্চুরি মাহমুদউল্লাহর অর্ধশতক ও মাশরাফির ব্যাটিং ঝড় ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৩০২ রানের বড় টার্গেট দেয় বাংলাদেশ। টার্গেট জয়ের লক্ষ্যে গেইল আর পাওয়ালের ব্যাটিং এ ম্যাচটা টানটান উত্তেজনার মাঝে বাংলাদেশ ১৮ রানে হারালো ওয়েষ্ট ইন্ডিজকে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এটাই ছিল বাংলাদেশের সর্বোচ্চ সংগ্রহ। ৩৫ বার তিন’শ রান তাড়া করে ওয়েষ্ট ইন্ডিজের জয়ের রেকর্ডটা কখনও ভাল ছিল না। তারা জিতেছে একবার। এবার যোগ হলো আরেকটি ম্যাচ তাদের ঝুলিতে। ওয়ানডে ইতিহাসে ৩৬ ম্যাচে তিনশ’র বেশী রান তাড়া করে ওয়েষ্ট ইন্ডিজ জয়ের সংখ্যা সেই একই ঘরে আটকে রইলো।

বিশ্ব ক্রিকেট ইতিহাসে, বিদেশের মাঠে তিন ওয়ানডে সিরিজে দুই ম্যাচে শত রান করা ক্রিকেটার ছিলেন দুই জন।প্রোটিয়া ক্রিকেটার হাশিম আমলা ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়া এবি ডি ভিলিয়ার্স। এই সিরিজে যুক্ত হলো নতুন নাম তামিম ইকবাল। তিনি ওয়েষ্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ওয়ানডে ম্যাচের সিরিজে বিদেশের মাঠে দুটো সেঞ্চুরি হাঁকালেন। ম্যাচ শেষে ম্যান অব দ্য ম্যাচ আর সিরিজ সেরা পুরুস্কারটাও জয় করলেন তামিম ইকবাল-ই।আর ঠান্ডা মাথায় গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ খেলার পুরুস্কারটা পেলেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। তিন ওয়ানডে ম্যাচে অধিনায়ক বাংলাদেশ দলের পক্ষে সবচেয়ে বেশি ৭ উইকেট লাভ করেন।

ছবিঃ ইএসপিএন