চলে এলো নতুন আইফোন ১০এস এবং আইফোন ১০আর

সাইফ তনয় (টেক ব্লগার)

গত বেশ কয়েক বছর ধরে সেপ্টেম্বর এলেই পুরো প্রযুক্তি বিশ্ব তাকিয়ে থাকে অ্যাপলের বিশেষ ইভেন্টের দিকে। কারণ, এই ‘স্পেশাল ইভেন্টে’ নতুন মডেলের আইফোন প্রকাশ করে অ্যাপল। এবারও ব্যতিক্রম নয়। ক্যুপারটিনোতে অ্যাপলের হেডকোয়ার্টার্সে স্টিভ জবস থিয়েটারে নিজস্ব টেক ইভেন্টে অ্যাপল তাদের নতুন তিনটি আইফোন উন্মোচন করল। আইফোন ১০এস, আইফোন ১০এস ম্যাক্স এবং আইফোন ১০আর প্রকাশ করেছে অ্যাপল।

গতবারের মত, এবারও ব্যাপক পরিমাণে তথ্য ফাঁস ঠেকাতে পারেনি এই টেক জায়ান্ট। তাই ২০১৮ সালের ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন সম্পর্কে অনেক কিছুই আমরা আঁচ করতে পেরেছিলাম আগেভাগে। এবারের তিনটি আইফোন মডেলই চলবে আইওএস ১২ অপারেটিং সিস্টেমে। তো আর দেরি নয়, চলুন জেনে নিই নতুন আইফোন ১০এস, আইফোন ১০এস ম্যাক্স এবং আইফোন ১০আর কী কী চমক নিয়ে এলো।

আগে থেকেই স্পয়লার দিয়ে রাখছি- এবার কিন্তু একটি অপেক্ষাকৃত কম দামের আইফোন মডেল বাজারে আনার ঘোষণাও দিয়েছে অ্যাপল। সুতরাং এই পোস্টটির পুরোটা মনোযোগ দিয়ে পড়তে যেনো ভুল না হয়!

আইফোন ১০এস (আইফোন XS) এবং আইফোন ১০এস ম্যাক্স (আইফোন XS Max)

ঠিক যেমনটি ফাঁস হয়েছিল, অ্যাপল এবার আইফোন ১০ এর ‘সিক্যুয়েল’/সিরিজ রিলিজ করেছে। আইফোন ১০এস এ পাচ্ছেন ৫.৮ ইঞ্চি সুপার রেটিনা ওএলইডি ডিসপ্লে, যেখানে আইফোন ১০এস ম্যাক্স দিচ্ছে একই প্রযুক্তির ৬.৫ ইঞ্চি স্ক্রিন। উভয় ডিভাইসই পানিরোধী বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন (আইপি৬৮ রেটিং)।

অ্যাপলের এ১২ বায়োনিক চিপ ব্যবহার করে চলবে আইফোন ১০এস (আইফোন XS) এবং আইফোন ১০এস ম্যাক্স (আইফোন XS Max)। ফোনদুটিতে ৭ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা এবং ১২ মেগাপিক্সেল ডুয়াল মেইন ক্যামেরা পাবেন। ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড কম্পোজিশন ঠিক রাখতে এসেছে স্মার্ট এইচডিআর এবং ডেপথ ফিল্ড এডজাস্টমেন্ট ফিচার।

আইফোন ১০এস (আইফোন XS) এবং আইফোন ১০এস ম্যাক্স (আইফোন XS Max) ফোনে গত বছরের আইফোন ১০ এর চেয়ে উন্নত ব্যাটারি দিয়েছে অ্যাপল। নতুন ডিভাইসদুটি কমপক্ষে ৩০ মিনিট বেশি সময় ব্যাটারি ব্যাকআপ দেবে বলে জানিয়েছে কোম্পানিটি। এছাড়া এগুলো ডুয়াল সিমও সাপোর্ট করবে, যা নির্দিষ্ট কিছু দেশে পাওয়া যাবে।

আইফোন ১০এস এবং ১০এস ম্যাক্স এর প্রিঅর্ডার শুরু ১৪ সেপ্টেম্বর, এবং শিপিং ২১ সেপ্টেম্বর। আইফোন ১০এস এর দাম শুরু ৯৯৯ ডলার থেকে (৬৪জিবি), এবং ১০এস ম্যাক্স এর দাম শুরু ১০৯৯ ডলার থেকে (৬৪জিবি)।

আইফোন ১০আর (আইফোন XR)

 

এটি হচ্ছে সেই বহুল কাঙ্ক্ষিত ‘অপেক্ষাকৃত’ কম দামের আইফোন। এর আগেও অ্যাপল তাদের মূল আইফোন মডেলের পাশাপাশি সুলভ আইফোন বাজারে এনেছিল যেগুলো দামের দিক দিয়ে কিছুটা সাশ্রয়ী ছিল, যদিও সেগুলো খুব একটা স্মরণীয় হয়ে থাকেনি। এবার আইফোন ১০আর মডেল দিয়ে আবারও মধ্যম দামের স্মার্টফোন বাজার ধরতে চাচ্ছে অ্যাপল।

আইফোন ১০আর এ পাচ্ছেন ৬.১ ইঞ্চি এলসিডি ডিসপ্লে, যাকে অ্যাপল বলছে ‘লিকুইড এলসিডি’ প্রযুক্তি। এতে থাকছে অ্যাপল এ১২ বায়োনিক চিপ, ফেইস আইডি সাপোর্ট, ফুল ডিসপ্লে প্রভৃতি। এতে কোনো থ্রিডি টাচ নেই। সামনের দিকে ৭ মেগাপিক্সেল এবং পেছনে ১২ মেগাপিক্সেল সিংগেল (ওয়াইড এঙ্গেল) লেন্সের ক্যামেরা। অ্যাপল বলছে, আইফোন ৮ প্লাসের চেয়ে এর ব্যাটারি ব্যাকআপ ৯০ মিনিট বেশি হবে।

আইফোন ১০আর বাজারে আসবে অক্টোবরের শেষার্ধে, এর দাম শুরু হবে ৭৪৯

ডলার থেকে (৬৪জিবি)।

ছবি: গুগল