ব্যতিক্রমী চরিত্রের জন্য আমিই যুৎসই : সুস্মি রহমান

ইমরুল শাহেদ

সব কিছু যদি ঠিকঠাক থাকে তাহলে ঢাকার চলচ্চিত্র ১২ অক্টোবর একজন সম্ভাবনাময় তারকা পেতে যাচ্ছে। তার উচ্চতা পাঁচ ফুট পাঁচ ইঞ্চি। মডেল হিসেবে গণমাধ্যমের কাছে তার পরিচিতি ‘জিপি কন্যা’ হিসেবে। নাম সুস্মি রহমান। তিনি এম সাখাওয়াত হোসেন পরিচালিত ‘আসমানী’ ছবিতে অভিনয় করেছেন। এই ছবিতে একক নায়িকা এবং তার বিপরীতে নায়ক হিসেবে রয়েছেন বাপ্পী চৌধুরী। সুস্মি বলেছেন, অভিনয় বিষয়টা তার কাছে খুব স্বাভাবিক একটা বিষয়। সেটা তিনি সমাজের বিভিন্ন চরিত্র পর্যবেক্ষণের মধ্য দিয়ে রপ্ত করেছেন। তিনি বলেন, ‘ব্যতিক্রমী ধরনের চরিত্রের জন্য আমি যথেষ্ট যুৎসই একজন অভিনেত্রী।’
একজন নবাগতকে নাম ভূমিকায় কেন নেওয়া হয়েছে জানতে চাইলে পরিচালক সাখাওয়াত হোসেন বলেন, ‘আমার দরকার ছিল অভিনয় জানা একটি সুন্দরী মেয়ের। আমি সেটা তার মধ্যে পেয়েছি। এছাড়া অভিনয়ের ব্যাপারে তার অতীত পটভূমিও শক্ত পাটাতনের উপর সুপ্রতিষ্ঠিত।’
সুস্মি রহমান ছবিতে অভিনয়ের পাশাপাশি ‘বেল্লা ভিস্তা’ নামে একটি ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের কোম্পানিও পরিচালনা করেন। বেল্লা ভিস্তা কথাটির অর্থ হলো সুদর্শন। সাখাওয়াতের বক্তব্যের প্রতিধ্বনিই পাওয়া যায় সুস্মির বেল্লা ভিস্তা নামটির মধ্যে। সুস্মি রহমান কোম্পানিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক।
কুমিল্লার লাকসামে বাড়ি হলেও তার জন্ম এবং বড় হওয়া চট্টগ্রামে। লেখাপড়াও সেখানে করেছেন এবং সাংস্কৃতিক অঙ্গনের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন চট্টগ্রামেই। সুস্মি জানিয়েছেন, পরিবারের মধ্যে মিডিয়া জগত নিয়ে একটা নিষেধাজ্ঞা ছিল তার বিরুদ্ধে। সে বাধা অতিক্রম করেই তাকে মিডিয়া জগতের সঙ্গে যুক্ত হতে হয়েছে। তিনি সেই ছোটবেলায় চট্টগ্রাম টিভিতে অনুষ্ঠান করতে শুরু করেন। টিভি অনুষ্ঠান কেন্দ্র করে পরিবার থেকে এক সময় তার স্কুলে যাওয়াও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। তারপরও তার বোন এবং দুলাভাইয়ের সহযোগিতায় তিনি অনুষ্ঠান করে গেছেন। তার এই আগ্রহ দেখে শেষ পর্যন্ত তার উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।
সুস্মি রহমানরা তিন বোন এক ভাই। তিনি সেজো। তিনি বলেন, তার সবচেয়ে বেশি আগ্রহ ছিল র‌্যাম্প মডেলিংয়ে। তিনি র‌্যাম্প হিসেবে কতগুলো শো করেছেন তা সুনির্দিষ্ট করে বলতে পারেননি। তবে মিডিয়ার ক্যারিয়ারে তিনি আঠারটি টিভিসি, পাঁচটি নাটক, তিন থেকে চারটি ধারাবাহিক নাটক এবং পাঁচ থেকে ছয়টি টেলিফিল্মে অভিনয় করেছেন। সেখান থেকেই তার চলচ্চিত্রে আসা। তিনি বলেন, ‘সাখাওয়াৎ ভাই আসমানী ছবিতে আমাকে নাম ভূমিকায় আভিনয় করার সুযোগ দিয়েছেন।’ তিনি বলেন, ‘এখন আমি চলচ্চিত্রে নিয়মিত অভিনয় করতে চাই।’ তবে সুস্মি রহমান পড়াশোনা করেছেন ফ্যাশন ডিজাইনিংয়ে। আসমানী ছবির পোশাক পরিকল্পনাও করেছেন তিনি।
সুস্মি রহমান ২০০৮ সাল থেকে নিয়মিতভাবে গ্ল্যামার জগতের বিভিন্ন শাখায় বিচরণ শুরু করেন। তিনি তার সেই পথচলা অব্যাহত রাখতে চান।

ছবি: গুগল