শাকিব-অপুর জন্য আটকে আছে তিন ছবি

ইমরুল শাহেদ

অপু বিশ্বাস এবং শাকিব খান শিডিউল না রাখায় তিনটি ছবির কাজ দীর্ঘসময় ধরে থেমে আছে। জি সরকারের ‘লাভ ২০১৬’, মনতাজুর রহমান আকবরের ‘মাই ডার্লিং’ এবং কালাম কায়সারের ‘মা’।
বিবাহ বিচ্ছেদের পর থেকেই শিডিউল দিয়েও রক্ষা করছেন না এই দুই তারকা। মান্নানের ‘পাংকু জামাই’ কোনো রকমে ডামি দিয়ে শেষ করে মুক্তি দেওয়া হলেও ফেঁসে গেছেন তিন পরিচালক। এ ব্যাপারে জি সরকার জানান, আর মাত্র চার দিন কাজ হলেই তার ‘লাভ ২০১৬’ ছবিটির কাজ শেষ হয়ে যাবে। ২০১৬ সালের ডিসেম্বর মাসে ছবিটির কাজ শুরু হয়েছে। কিন্তু এখন ২০১৮ সাল। ছবিটির নামও ঠিক থাকলো না। দুই বছর চেষ্টা করার পরও ছবিটির কাজ শেষ করা গেলো না। যেহেতু ছবিটি চলতি বছরও শেষ করতে পারছেন না, সেহেতু জি সরকার ছবিটির নাম পরিবর্তন করে রেখেছেন ‘লাভ ২০০০’।
আশংকা প্রকাশ করে এই পরিচালক বলেন, ‘কবে নাগাদ ছবির কাজ শেষ করতে পারবো তা নিশ্চিত করে বলতে পারছি না। অনেক চেষ্টা করেও দু’জনের শিডিউল মিলাতে পারছি না। শাকিব খান শিডিউল দিলে অপু বিশ্বাসের শিডিউল পাওয়া যায় না। অপু বিশ্বাসের শিডিউল পাওয়া গেলে শাকিব খানের শিডিউল পাওয়া যায় না। কয়েকদিন তাদের দেওয়া শিডিউল অনুসারে শুটিং রাখা সত্তে¡ও তারা আসেননি। তাতে প্রযোজক আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।’
এক পর্যায়ে এসে অপু ও শাকিবের কাছে আইনী নোটিশও পাঠিয়েছেন জি সরকার। তাতেও কোনো কাজ হয়নি। এখন তিনি শিডিউলের অপেক্ষায় রয়েছেন।
মনতাজুর রহমান আকবর ফেঁসে গেলেও নীরবে বসে আছেন। তিনি বলেন, ‘অপু-শাকিবের ক্যারিয়ার এখন যে পর্যায়ে তাতে আশা করা যায়, সময় দিয়ে তারা নিজেরাই ছবির কাজ শেষ করে দেবেন।’
পরিচালক সমিতির সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম খোকন বলেন, ‘আমাদের কাছে এ নিয়ে কোনো অভিযোগ নেই। সেজন্য আমাদের কোনো তৎপরতাও নেই। আসলে এ ধরনের কোনো জটিলতা নিয়ে কেউ সালিশ সুপারিশে আসেন না।’
চলচ্চিত্র শিল্পের বিভিন্ন সূত্র থেকে বলা হচ্ছে, বাজারের তুলনায় শাকিব খানের পারিশ্রমিক বেশি। তাই তার কাছে পারতপক্ষে কোনো প্রযোজক এখন আর যেতে চান না। তবে সম্প্রতি বুবলিকে নিয়ে তার একটি ছবির কাজ শুরু হয়েছে। ছবিটি হলো শাহীন সুমনের ‘একটু ভালোবাসা দরকার’।

ছবি: গুগল