এই দেশে ডোনারের ইন্টারেস্ট ছাড়া আন্দোলন জমেনা

ফেইসবুক এর গরম  আড্ডা চালাতে পারেন প্রাণের বাংলার পাতায়। আমারা তো চাই আপনারা সকাল সন্ধ্যা তুমুল তর্কে ভরিয়ে তুলুন আমাদের ফেইসবুক বিভাগ । আমারা এই বিভাগে ফেইসবুক এ প্রকাশিত বিভিন্ন আলোচিত পোস্ট শেয়ার করবো । আপানারাও সরাসরি লিখতে পারেন এই বিভাগে । প্রকাশ করতে পারেন আপনাদের তীব্র প্রতীকক্রিয়া।

রওশন আরা নিপা

রওশন আরা নিপা (চলচিত্র পরিচালক)

আজ প্রায় ১০ দিন একটানা শুয়ে আছি দেশ দুনিয়ার খবর একটু আধটু চোখে পড়লেও ক্রিয়া -প্রতিক্রিয়া দেখানোর মত আবস্থায় নেই। একদিক দিয়ে বিষয়টা ভালোই হয়েছে নির্লিপ্ত থাকতে পারাটা একধরনের যোগ্যতা। এই যোগ্যতা আমার একেবারেই নেই। এই যেমন এখন আবার চুলকানি শুরু হয়েছে। বিষয় খাদিজাকে নির্মম ভাবে কোপানো এবং ছাত্রলীগের দায়ভার।
এই দেশে সবচেয়ে বেশী সহজলোভ্য হচ্ছে অন্যের উপরে দোষ চাপিয়ে নিজেকে সেরা হিসেবে প্রমান করা। আমরা কোন ভাবেই নিজের দোষ বা দায়িত্ববোধ পর্যালোচনা করিনা। মেয়েটাকে দিনদুপুরে সবার সামনে কোপালো কেউ এগিয়ে আসলোনা কথাটা পুরোটা সত্য নয় কারন একজন ইমরান এসেছিল বলেই আজকেও খাদিজা জীবন মরনের যুদ্ধে টিকে আছে। এক্ষেত্রে যিনি ভিডিও করলেন তাঁকে অন্তত ধন্যবাদ দেব কারন অন্তত প্রমান রেখেছেন । আমরা নেতিবাচক চর্চা করতে করতে ভুলেই গিয়েছি যে মানবতা বলে কিছু আছে এবং সেটা দেখাতে হয়।
একজন বদরুল তাঁর একান্ত ব্যাক্তিগত ক্রোধের বহিঃপ্রকাশ করেছে , ছাত্রলীগ সাংগঠনিক বা দলীয় ভাবে কাজটা করেনি ।সেখানে তার অপরাধের মাত্রাকে জনমনে বিচারহীনতার আশংকা এবং মেরুদন্ডহীন প্রশাসনকে আরো উস্কে দেবার জন্যই সুপরিকল্পিত ভাবে ছাত্রলীগ পরিচয়টাকে বড় করে দেখানো হচ্ছে। তার চেয়ে উল্টোটা করাই কি যুক্তিসঙ্গত ছিলনা? না আমরা সেরকম করবোনা কারন তাহলে তো সেলিব্রিটী, বিপ্লবী হতে পারবোনা কি বলেন?
এই যে আপনারা কীবোর্ডে ঝড় তুল চলেছেন একবার বুকে হাত দিয়ে নিজেকে জিজ্ঞেস করেন তো আপনি ওইখানে থাকলে কি করতেন? আপনার সন্তান থাকলে তাকে কি করতে বলতেন? এখন এই কদিনে ওই মেয়েটার জন্য কতটূকু করেছেন? এর ন্যায় বিচার যাতে নিশ্চিত হয় তার জন্য ভবিষতে কি করবেন?
আজকের খাদিজা, গতকালকের তনু, আরো কতজন লিস্ট অনেক লম্বা এই সব কিছুর পিছনে ছাত্রলীগ নয় কিছু জানোয়ার রূপি মানুষ, যা সব খানে সব জায়গায় ই আছে, সুযোগ পেলেই সে তার আপন চেহারা দেখায়। বিচারহীনতার যে সংস্কৃতি তার পিছনের কারন যেমন রাজনৈতিক পেশী শক্তি , তার চেয়েও বড় কারন টাকার শক্তি যেখানে সব কিছু তুচ্ছ। কাক , কাকের মাংস খায়না পুলিশ ঠিকই খেল, তাহমিদ, হাসনাত নির্দোষ কারনটা বুঝে নেন। আশা করি বোঝেন ও কিন্তু বলেন না কারন এসবে সেলিব্রিটি হওয়া যায়না ।সেলিব্রিটি বুদ্ধিজীবীর পূর্বশর্ত সরকারের সমালোচোনা করা। শেষ মেষ আরেকটা অপ্রাসঙ্গিক কথা,এই দেশে ডোনারের ইন্টারেস্ট ছাড়া আন্দোলন জমেনা তাই সুন্দরবন নিয়া যত দরদ দেখবেন চোখের সামনে বুড়ীগঙ্গা ধ্বংস হয়ে কবর হয়ে গেল কারো কোন চোখের পানি তো ভালো, দুটা কথা কইতে দেখলামনা।