আমাদের চাওয়া ছিলো খুব কম…

shapma-rezaসংসার এক কুরুক্ষেত্র। রোজ সেখানে যুদ্ধ আর রক্তপাত। কিন্তু সে লড়াই অদৃশ্য। আমাদের জানার বাইরে ঘটে চলে সেই ক্ষরণ আর যুদ্ধ। প্রতিপক্ষ সংসারের স্বজনরাই। প্রাণের বাংলার এই বিভাগে আমরা সেই অদৃশ্য ক্ষরণের কাহিনি তুলে ধরতে চাই। আপনি জানাতে পারেন আমাদের সেসব কথা। গোপনীয়তা বজায় রাখার শর্তে আমরা প্রকাশ করবো সেইসব কাহিনি।আর আপনার সমস্যা বিচার করে আপনাকে উপযুক্ত সমাধান দিবেন অভিনেত্রী ও সঙ্গীত শিল্পী শম্পা রেজা।

প্রায় ১বছর ৪ মাস আমার ছেলেকে বিয়ে করিয়েছি।বিয়েতে আমাদের কোন দাবি-দাওয়া ছিলো না।কেবল আমরা এটি ভদ্র,শান্ত, সভ্য, শিক্ষিত মেয়ে চেয়েছিলাম।কিন্তু বিয়ের এক মাস পর থেকেই আমাদের পুত্রবধূর বাক্যবাণ শুরু হয়।কোন ব্যপারে কিছু বলতে গেলে আমার স্বামী বা আমাকে যা ইচ্ছে তাই বলে। আমার ছেলের সঙ্গেও চিৎকার- চেঁচামেচি করে।এমনিতে আমরা সকলেই খুব শান্ত চুপচাপ স্বভাবের। ছেলের কথা ভেবে আমরা খুবই অশান্তিতে আছি।কারণ আমরাইতো দেখেশুনে ওর বিয়ে দিয়েছি।এখন আমার বক্তব্য, ওদের ডিভোর্স করিয়ে দেওয়াটি কি সম্ভব?যদিও আমি ডিভোর্স চাই না তবে বৌমাকে একটু ভয় দেখাতে চাই।এখন আমার ছেলের সংসারে শান্তি ফিরিয়ে আনার কি কোন উপায় আছে?

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

ধানমন্ডি, ঢাকা।

ডিভোর্স তো আপনার ছেলেকে দিতে হবে। সে ক্ষেত্রে সে রাজী হবে কি? আর ভয় দেখানোর ব্যপারটাতেও ছেলের সায় থাকবে কি সব ভেবে দেখতে হবে।আমার মনে হয় আপনাদের ছেরের সঙ্গে বসে সবদিক আলোচনা করে ডিশিসন নিতে হবে।অনেক সময় বৌরা শশুর- শাশুড়ির সঙ্গে থাকতে চায় না। তাই এমন করে। সুতরাং আপনাদেরকে ছেলের সংসারে শান্তির জন্য ভেবে-চিন্তে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।