#WhyIDidntReport

ইন্টারনেটে #MeToo আন্দোলন চলতে চলতেই এবার আরেক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ট্যুইটারে শুরু হলো #WhyIDidntReport.  নতুন এই হ্যাশট্যাগ শুরু হওয়ার কারণ আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷ আমেরিকান অ্যাটোর্নি ব্রেট মাইকেল ক্যাভানফের বিরুদ্ধে অধ্যাপক ক্রিস্টিন ফোর্ড কেন যৌন হেনস্থার মামলা করেননি এমনই প্রশ্ন তুলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। ক্রিস্টিনের অভিযোগ, তাকে যৌন হেনস্থা করেছেন ব্রেট৷ তাই এমন প্রশ্ন করেছেন ট্রাম্প৷ যদি যৌন হেনস্থা হয়েই থাকে তাহলে বিষয়টা আগে উত্থাপিত হলে ব্রেটের বিরুদ্ধে আইনও সঠিক ব্যবস্থা নিতে পারতো।

ব্রেট মাইকেল ক্যাভানফ ও ক্রিস্টিন ফোর্ড

ডোনাল্ড ট্রাম্পের নিজের এমন ট্যুইটে সঙ্গে সঙ্গে সাড়া পাওয়া যায়। বহু নারী ট্যুইটারে তাদের মৌন থাকার ব্যাখ্যা লিখে জানাতে শুরু করেন। গেল শুক্রবার ডোনাল্ড ট্রাম্প এই মন্তব্য করার পর রবিবারেই এ ধরণের অভিযোগ সম্বলিত ১ লক্ষ ৭৫ হাজার ট্যুইট প্রকাশিত হয়।

#Metoo-এর সঙ্গে এই নতুন আন্দোলনের পার্থক্যটা অন্য জায়গায়৷ যৌন হেনস্থার শিকার নারীরা কেন কোনও আইনি অভিযোগ দায়ের করেননি সেই কারণ ট্যুইটারে জানিয়ে এই হ্যাশট্যাগ দিচ্ছেন তারা। এই অভিযোগ উত্থাপনকারীদের তালিকায় রয়েছেন বেশ কয়েকজন তারকা৷ অভিনেত্রী ড্যারিল হ্যানা, উইটনি কিউমিনস, লিলি রেইনহার্ট নিজেদের হেনস্থার কথা জানিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়৷

এই তালিকায় উঠে এলো জনপ্রিয় অভিনেত্রী অ্যাশলি জ্যুডের কথা৷ মাত্র ১৫ বছর বয়সে ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন এই অভিনেত্রী৷ তিনি ট্যুইট করে লিখেছেন, “প্রথমবার যখন আমাকে হেনস্থা করা হয়, তখন আমার মাত্র সাত বছর বয়স৷ তখন আমার এক অভিবাবককে কথাটা জানাই৷ তিনি বলেছিলেন, ‘না না৷ তুমি ভুল ভাবছো৷ উনি একজন খুব ভালো মানুষ৷ উনি একেবারেই অনৈতিক কিছু ভেবে কাজটা করেননি৷’

অ্যাশলি জুড তার জীবনের আরো ভয়াবহ অভিযোগের কথা জানিয়ে বলেছেন, ‘তারপর আমার যখন ১৫ বছর বয়স, আমি ধর্ষিতা হই৷ সে সময় আর কাউকে কিছু জানাইনি৷ ডায়েরিতে লিখেছিলাম৷ আর যখন একজন আমার ডায়েরিটা পড়ে ফেলে তখন সে বলেছিল আমি একজন বয়স্ক মানুষের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হয়েছি, আমার লজ্জ্বা হওয়া উচিত৷’

জুডের মতো আরো অনেকেই নিজেদের হেনস্থার কথা স্বীকার করে জানিয়েছেন কেন তারা অভিযোগ দায়ের করেননি৷ যৌন হেনস্থার পরও মানসিক ভাবে বিভিন্ন রকমের কথা বার্তায় তাদের অত্যাচারিত হতে হয়, যার জন্যই মুখ বন্ধ রাখাই শ্রেয় মনে করেছেন তারা।

প্রাণের বাংলা ডেস্ক
তথ্যসূত্রঃ গার্ডিয়ান, বিবিসি
ছবিঃ গুগল